বৃহস্পতিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৯, ০৬:০৪ পূর্বাহ্ন

শেকল দিয়ে বেঁধে মাদরাসা ছাত্রকে নির্মম নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিবর্তন করতে চাওয়ায় ক্রুব্ধ শিক্ষকের নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়েছে ইয়াছিন আরাফাত নামে এক মাদ্রাসাছাত্র। লক্ষ্মীপুর পৌর এলাকার লাহারকান্দি রওয়াতুল উলুম ইসলামিয়া মাদ্রাসায় বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।অভিযুক্ত শিক্ষক ওই ছাত্রকে শেকল দিযে বেঁধে বেদম মারধর করেন। শিক্ষকের প্রহারে শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়ে ওই ছাত্র অচেতন হয়ে পড়ে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা।

এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুল কাদের ফয়েজী পলাতক।আহত ছাত্র লাহারকান্দি গ্রামের আব্দুর লতিফের ছেলে এবং ওই মাদ্রাসার হিফজুল কোরআন বিভাগের ছাত্র।

আহত ছাত্রের ভগ্নীপতি মো. ছলিম উদ্দিন জানান, হিফজুল কোরআন বিভাগের ছাত্র ইয়াছিন আরাফাত পারিবারিক সিদ্ধান্তে বর্তমান মাদ্রাসা হতে অন্যত্র ভর্তি হতে চায়। কিন্তু এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুল কাদের।

এসময় তিনি নির্মম এ নির্যাতনের ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

হাসপাতালে চিকিৎসাধিন ইয়াছিন আরাফাত জ্ঞান ফেরার পর সাংবাদিকদের বলে, অন্য মাদ্রাসায় ভর্তি হওয়ার কথা বলামাত্রই হুজুর রেগে যান। পরে তিনি একজনকে নির্দেশ দেন আমাকে লোহার শেকল দিয়ে পিলারে বেঁধে ফেলার জন্য। তারপর হুজুর মোটা বেত দিয়ে এলোপাতাড়ি মারতে থাকেন।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আনোয়ার হোসেন জানান, ছাত্রটির গলায়,পিঠে,পায়েসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখমের চিহ্ন রয়েছে।

লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে হাসপাতাল ও ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে জানার জন্য চেষ্টা করেও অভিযুক্ত শিক্ষকসহ মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের কারো সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com