শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ১০:০৯ অপরাহ্ন

নওগাঁয় বাইসাইকেলে ইট বহন করে সংসার চলে ওদের!

আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর আত্রাই উপজেলার হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের বান্দাইখাড়া বাজারটি গড়ে উঠেছে আত্রাই নদীর তীরে। পাশেই গড়ে উঠেছে দুটি ইটভাটা। ভাটা দুটির ইটের প্রধান ক্রেতা আশপাশের গ্রামের মানুষ। গ্রামের ভেতরের অধিকাংশ রাস্তাই কাঁচা ও সরু হওয়ায় ভ্যান-রিকশা চলাচলের উপযোগী নয়। তাই বিভিন্ন পণ্য পরিবহনে
ব্যবহার করতে হয় বাইসাইকেল।যোগাযোগের ক্ষেত্রে বাইসাইকেলই এই
জনপদের একমাত্র ভরসা। এবাইসাইকেলে পণ্য পরিবহনকে কেন্দ্র করেই গড়ে উঠেছে একটি পেশা।

কিছু মানুষ সারা বছর বাইসাইকেলে নানা পণ্য পরিবহন করেই জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। তা দিয়েই চলে তাদের সংসার।
জানা যায়, এখানে বাইসাইকেল শ্রমিকদের সাতজনের একটি দল আছে।
সাইকেলের মাঝখানে বিশেষ কায়দায় পাটের বস্তা ঝুলিয়ে ইট বহন করেন তারা। প্রতিটি সাইকেলে ৮০-৯০টি ইট নেয়া যায়। রাস্তা বেশ উঁচু-নিচু হওয়ায় পেছনে একজনকে ঠেলতে হয়। বাইসাইকেলে ইটসহ অনান্য পন্য পরিবহন করেই এদের সংসার চলে। বাইসাইকেলই এদের একমাত্র আয়ের উৎস।বাইসাইকেল শ্রমিক জাকির হোসেন জানান, ভাটা থেকে প্রায় চার কিলোমিটার দূরে ইট বহনের কাজ করেন। প্রতি হাজার ইট ভাটা থেকে বাড়িতে পৌঁছে দিতে ১ হাজার টাকা নেন। তবে দূরত্ব অনুযায়ী ভাড়া
কিছুটা কমবেশি হয়ে থাকে।

প্রায় সারা বছরই তারা বাইসাইকেলে করে জীবিকা নির্বাহ করেন। সাইকেলই তাদের জীবিকা নির্বাহের একমাত্র উৎস।
আরেক বাইসাইকেল শ্রমিক ইনতাজ হোসেন, সুমন ও ফারুক হোসেন দীর্ঘদিন ধরে এ পেশার সঙ্গে জড়িত। তারা বলেন, একটি সাইকেলে প্রায় ৮০-৯০টি ইট নেয়া যায়। এ পরিমাণ ইটের ওজন প্রায় আট থেকে নয় মণ। ইটের মৌসুমে ইট বহনের কাজ করা হলেও অন্য সময়ে হাট-বাজারে ধান, সার ও সিমেন্টের বস্তা বহনের কাজ করেন তারা। এ থেকেই তাদের সংসার চলে। হাটকালুপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস শুকুর বলেন, এই
বাইসাইকেল চালিয়ে যে পরিমাণ আয় হয়, তা দিয়ে একটি সংসার খুব ভালোভাবে চলে যায়। এলাকার বেশ কয়েকটি পরিবারের সদস্য এ পেশায় সার্বক্ষণিক নিয়োজিত আছে। তবে এই এলাকার রাস্তাঘাটগুলো সম্প্রসারণ ও আধুনিকায়নের জন্য চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। বরাদ্দ ও অনুমোদন পেলেই কাজগুলো শুরু করবো।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com