বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখতে শ্রীমঙ্গলে ৩৫ দেশের রাষ্ট্রদূত

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখতে শ্রীমঙ্গলে ৩৫ দেশের রাষ্ট্রদূত

জেলা প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার : বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য উপভোগ করতে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ভ্রমণে এসেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ৩৫টি দেশের রাষ্ট্রদূত ও ৭টি আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিরা।

শুক্রবার দুপুরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে এম আব্দুল মোমেনের নেতৃত্বে তারা এসে পৌঁছান শ্রীমঙ্গলের একটি পাঁচতারকা মানের হোটেলে। এ সময় তাদেরকে স্থানীয় মনিপুরি নৃত্যে ও ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। পরে তারা বিভিন্ন চা-বাগান ও আদিবাসী পাড়াসহ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য মন্ডিত এলাকা ঘুরে দেখেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আবদুল মোমেন এমপি বলেছেন, ‘ঢাকা একটা সীমাবদ্ধ জায়গা। বাংলাদেশকে জানার মতো কূটনীতিকদের তেমন সুযোগ হয় না। আমাদের দেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য দেখানো বাংলাদেশকে জানা ও বিনোদনের জন্য বিদেশি রাষ্ট্রদূতদের নিয়ে চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গলে আসা। আমাদেরও গর্ব করার অনেক কিছু আছে, মারামারি কাটাকাটির পরেও যে একটা দেশ আছে, কত সুন্দর কতকিছু আছে, পরিবেশ-প্রকৃতি, গান, সংস্কৃতি আছে।

তা দেখানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ভারতসহ ৩৪টি দেশের রাষ্ট্রদূত, কূটনীতিক ও তাদের পরিবারের সদস্য এবং ৬টি উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি নিয়ে শ্রীমঙ্গলে আসা।’ এর মাধ্যমে বিদেশি রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে আমাদের দেশের আরো সুসম্পর্ক তৈরি হবে বলে জানান তিনি। শুক্রবার দুপুরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আমন্ত্রণে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ঘুরতে এসে গ্র্যান্ড সুলতান টি রিসোর্ট এ্যান্ড গল্ফ এ এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন। রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ওরা কতদিন বাংলাদেশে থাকবে তা তার জানা নেই।

এ সময় ভারত, ইতালি, লিবিয়া, কোরিয়া, মালয়েশিয়া, মরক্কো, নেপাল, আফগানিস্তান, ভুটান, ব্রাজিল, কুয়েত, কানাডা, ফ্রান্স, তুর্কি, ইউএসএ, ওমান, জাপান, ফিলিপাইন, ডেনমার্ক, সুইজারল্যান্ড, সিঙ্গাপুর ও পাকিস্তানসহ ৩৪টি রাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতেরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া ছিলেন উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ইউএনডিপি, সার্ক, ব্রিমস্টেক, ইউএনএফপিএ, ইউসিকেইএফ বিডি, ইউএনএইচসিআর, ইউএসডিএসএস প্রতিনিধিরা।

এ সময় মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম, পুলিশ সুপার মো. শাহ জালাল, এডিসি (রাজস্ব) আশরাফুল আলম খান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান, অফিসার ইনচার্জ কেএম নজরুল উপস্থিত ছিলেন।

বিকালে রামনগর মণিপুরি গ্রাম পরিদর্শন এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে তারা ইস্পাহানি চা বাগান ও চা বাগান কারখানা পরিদর্শন করেন। শনিবার সকালে ঢাকার উদ্দেশে তাদের শ্রীমঙ্গল ত্যাগ করার কথা রয়েছে।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com