বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ০৮:০৬ অপরাহ্ন

ফের ঈদের পরে আন্দোলন করার ফাঁকা বুলি ছাড়ছে বিএনপি

ফের ঈদের পরে আন্দোলন করার ফাঁকা বুলি ছাড়ছে বিএনপি

নিউজ ডেস্ক: ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে ঈদের পরে কঠোর আন্দোলনে যাবার ডাক দিয়ে আসছিলো বিএনপি। ২০১৪ সালের পর থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত সর্বমোট ১০টি ঈদ পার হলেও এখনো কোনো আন্দোলন তো দূরের কথা ছোটখাটো মিছিল ছাড়া কিছুই করতে পারেনি বিএনপি। এমতাবস্থায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খালেদা জিয়াকে সরাসরি মুক্ত করতে ঈদের পর ফের আন্দোলনের ডাক দিয়েছে বিএনপি।

সোমবার (৯ এপ্রিল) বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলীয় জোটের বৈঠকে ঈদের পর আন্দোলন বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। প্রায় ২ ঘন্টাব্যাপী এই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সূত্র জানায়, বৈঠকে বলা হয়েছে যে, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তি নেবেন না। তাকে সরাসরি মুক্ত করতে হবে। আর এই জন্য প্রয়োজন কঠোর আন্দোলন। তবে এই মুহূর্তে আন্দোলন করলে তা রোজায় এসে বন্ধ হয়ে যাবে। এ কারণে আমরা ঈদের পর কঠোর আন্দোলন করবো।

বিষয়টিকে হাস্যকর দাবি করে আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ বলেন, বিএনপি বিগত ১০ ঈদ থেকে বলে আসছে ঈদের পর কঠোর আন্দোলন করবে। কিন্তু করতে পারে নি। এখন বিএনপির এসব কথা শুনলে মানুষ হাসাহাসি করে। বিএনপির উচিত হাসির পাত্র না হয়ে এসব বাদ দিয়ে ২০২৫ সালের নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নেয়া। আর এটাই হবে বিএনপির জন্য মঙ্গলকর।

তবে বিষয়টি ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিগত সময়ে আমরা আন্দোলন করতে পারি নি, তার মানে এই নয় যে আমরা ভবিষ্যতেও আন্দোলন করতে পারবো না। সারা বাংলাদেশে বিএনপির অসংখ্য নেতাকর্মী রয়েছে। পূর্বে ব্যর্থ হয়েছিলাম কারণ আমাদের গঠনতন্ত্রে সমস্যা ছিলো। কিন্তু বর্তমানে আমরা অনেক বেশি শক্তিশালী। ঈদের পরে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে বের করে আনবো। ইনশাআল্লাহ।

এদিকে মির্জা ফখরুলের এমন বক্তব্যে খানিকটা হতাশ হয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদ বলেন, মির্জা ফখরুল সাহেব যতোই বলুক না কেন, বিএনপি আর সেই আগের অবস্থানে নেই। ১০ বছরে আগে বিএনপি যে অবস্থায় ছিলো এখনো ঠিক একই অবস্থায় আছে। উল্টো অনেক নেতা বর্তমানে জেলে রয়েছেন। এছাড়া মনে করেছিলাম ঐক্যফ্রন্টের কারণে দলের শক্তি বাড়বে। কিন্তু তা হয় নি। ফলে সব দিক থেকেই আমরা পিছিয়ে আছি। এমতাবস্থায় আন্দোলন তো দূরের কথা, অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে বিএনপি। ফলে ঈদের পরে কঠোর আন্দোলনে যাবার স্বপ্ন কিভাবে বাস্তবায়ন করা হবে তা আমার মাথায় ধরছে না।সুত্র: banglanewsbank


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com