রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ০২:৩৭ পূর্বাহ্ন

দুই মেরুতে বিএনপি : সরকারের উপরই আস্থা রাখলেন মির্জা ফখরুলের ভাই

দুই মেরুতে বিএনপি : সরকারের উপরই আস্থা রাখলেন মির্জা ফখরুলের ভাই

নিউজ ডেস্ক : ক্ষমতাসীন সরকারকে ব্যর্থ দাবি করে বেগম জিয়ার মুক্তি ও নতুন নির্বাচনের ব্যাপারে ক্রমাগত অভিযোগ করছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। অথচ মির্জা ফখরুলের আপন ভাই এবং ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীন ঠিকই বর্তমান সরকারের উপর আস্থা রেখেছেন।

গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের পাশাপাশি মির্জা ফয়সল আমীন ঠাকুরগাঁও পৌরসভার মেয়রের দায়িত্ব পালন করছেন। সোমবার (৮ এপ্রিল) কোন রকম বৈষম্য ছাড়াই ঠাকুরগাঁও শহরের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে চাহিদা মাফিক সহযোগিতার জন্য তিনি বর্তমান সরকারকে ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানে মির্জা আমীন বলেন, একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী ঠাকুরগাঁওয়ে গেলে তার কাছে উন্নয়নের দাবিগুলো তুলে ধরা হয়েছিল, তারই ফল আসতে শুরু করেছে এখন। সরকার কোন রকম বৈষম্য ছাড়াই ঠাকুরগাঁওয়ের উন্নয়নে সহযোগিতা করছে। আমরা সরকারের কাছে কৃতজ্ঞ।

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, মির্জা আমীন যখন সরকারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ঠিক তার বিপরীতে তার বড় ভাই মির্জা ফখরুল ইসলাম প্রতিনিয়ত ক্ষমতাসীন সরকারকে ব্যর্থ ও উন্নয়নবিমুখী হিসেবে তুলে ধরার জন্য বিভিন্ন সময়ে বক্তব্য দিচ্ছেন। অথচ মির্জা আমীন বিরোধী দলে থেকেও সরকারের উন্নয়নের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন। সেই অর্থে বর্তমান সরকার যে দলমত নির্বিশেষ দেশের উন্নয়নের পক্ষে সেটি আবারো প্রমাণ করলেন মির্জা আমীন।

এদিকে মির্জা আমীনের এমন বক্তব্যে বিএনপির রাজনীতিতে এক ধরণের কঠোর সমালোচনা শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে। বিএনপির নয়াপল্টন পার্টি অফিসের একটি সূত্র দলের অভ্যন্তরীণ অস্বস্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। সূত্রটি বলছে, মির্জা আমীনের এমন স্বীকৃতির ব্যাখ্যা জানতে বড় ভাই মির্জা ফখরুলকে গ্রহণযোগ্য জবাব দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে দলের স্থায়ী কমিটির একাধিক সদস্য। যদিও সদুত্তর না পাওয়ারও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তারা বলেও সূত্রটি নিশ্চিত করেছে।

দলের মানুষজনই যদি সরকারকে স্বীকৃতি দিয়ে ফেলে তবে সরকারবিরোধী আন্দোলন সংগ্রাম করে লাভ নেই, এমন প্রশ্ন এখন বিএনপি নেতাদের মনে মনে ঘুরছে বলেও জানা গেছে। দলের প্রভাবশালী নেতার ছোট ভাই হওয়ার সুবাদে এমন দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দুঃসাহস দেখানোয় বিএনপির অভ্যন্তরে দল ও নেতার প্রতি অশ্রদ্ধা বৃদ্ধি পাবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করছেন রাজনীতি সচেতন নাগরিকরা।সুত্র:banglanewsbank


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com