বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ০৮:৩৬ অপরাহ্ন

তরুণ সাংবাদিকদের মাঝে বাস্তব জীবনের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন- শ্যামল দত্ত

তরুণ সাংবাদিকদের মাঝে বাস্তব জীবনের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন- শ্যামল দত্ত

রিজু মোল্লা, জাবি প্রতিনিধিঃ তরুণ সাংবাদিকদের মাঝে সাংবাদিকতার নানা দিক তুলে ধরেন দেশের প্রথিতযশা প্রবীন সাংবাদিক শ্যামল দত্ত। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (জাবিসাস) এর আয়োজনে নবীন সাংবাদিকদের মাঝে সাংবাদিকতায় বাস্তবজীবনের অভিজ্ঞতালব্ধ ঘটনা তুলে ধরেন দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত। শুক্রবার দুপুর বারোটায় ‘গল্পে গল্পে সাংবাদিকতা’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালার তৃতীয় পর্বের প্রশিক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তিনি। জাবিসাস’র সাধারণ সম্পাদক হাসান আল মাহমুদের সঞ্চালনায় প্রশিক্ষক শ্যামল দত্ত বলেন, ‘ভালো সাংবাদিক হতে হলে প্রচুর লেখাপড়া, দুর্দান্ত নিউজ সেন্স, লেখায় দক্ষতা, শব্দ বিন্যাস ও প্রশ্ন করার গুণ থাকতে হবে। সাংবাদিকতা পেশা অলসদের জন্য নয়। সাংবাদিক হতে হলে সমসাময়িক বিষয়সহ ইতিহাস-ঐতিহ্য জানার পাশাপাশি সাহিত্যের জ্ঞানও রাখতে হবে। বর্তমান বাংলাদেশের বাজারে বেকার আছে কিন্তু কাজের লোক নেই। দেশে পরিশ্রমী ও স্মার্ট সাংবাদিকের অভাব রয়েছে।’

 
বর্তমান দেশের সাংবাদিকতা ও সাংবাদিকতার পরিবেশ সম্পর্কে দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত বলেন, আমাদের দেশের সংবাদপত্রের বা মিডিয়ার জন্য যুগপৎ কোন নীতিমালা তৈরী হয়নি। আবার যেটুকু আছে সেটাও আমরা যথাযথ মান্য করি না। ফলে কে পত্রিকার মালিক হচ্ছে আর কে সম্পাদক হচ্ছে তার কোন হিসেবও নেই। ইচ্ছা করলেই সম্পাদক বা পত্রিকার মালিক হওয়া যায় কিন্তু সাংবাদিক হওয়া বড়ই কঠিন।

 
এসময় প্রশিক্ষক হিসাবে সাংবাদিকতার নানা বিষয়ে তরুণ সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিতে নিজের জীবনের কর্মক্ষেত্রের কথা তুলে ধরেন। জাবিসাসের সদস্য রুদ্র আজাদের প্রশ্নের জবাবে শ্যমল দত্ত বলেন, ‘ওয়ান ইলেভেন’ ছিল আমার জীবনে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং সময়, এসময় আমার অনেক সহকর্মী নানাভাবে অপদস্ত-নির্যাতিত হয়েছিল। প্রশিক্ষণ কোর্সে তিনি দেশের নানামুখী উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন। এক দশকে তথ্য প্রযুক্তিসহ দেশের সর্ব ক্ষেত্রে যে পরিবর্তন হয়েছে সেসব বিষয়ে আলোকপাত করেন।এবং প্রথিবীর বিভিন্ন দেশের সাংবাদিকতা ও গণতন্ত্রের বহুমখিতা সম্পর্কেও তরুন সাংবাদিকদের কাছে উপস্থাপন করেন।

 

 
এ সময় জাবিসাস’র উপদেষ্টা অধ্যাপক বশির আহমেদ বলেন, ‘গল্পে গল্পে সাংবাদিকতা’ একটি ব্যতিক্রমধর্মী শ্রেণীকক্ষ। এখান থেকে শিক্ষা নিয়ে তরুণরা সাংবাদিকতার মাধ্যমে দেশের সেবা করার অনুপ্রেরণা পাবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। জাবিসাস’র সভাপতি প্লাবন তারিকের সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক সমিতির সদস্যরা সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান, ভোরের কাগজের বিশ^বিদ্যালয় প্রতিনিধি ও জাবি প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি রিজু মোল্লা প্রমুখ। এদিকে প্রশিক্ষণ শেষে ভোরের কাগজের সম্পাদককে সম্মাননা ক্রেস্ট, সাংবাদিক সমিতির ক্যালেন্ডার, বইসহ কিছু উপহার প্রদান করে জাবিসাস।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com