মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯, ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন

ধনবাড়ীতে শিক্ষকের বিরুদ্ধে সমকামীতা’র অভিযোগ

ধনবাড়ীতে শিক্ষকের বিরুদ্ধে সমকামীতা’র অভিযোগ

হাফিজুর রহমান.টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার কেন্দুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজী শিক্ষক মো: ওবাইদুল ইসলামের বিরুদ্ধে ছাত্রদের কে দিয়ে বাধ্য করিয়ে পরীক্ষায় ফেল করিয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম ছাত্রদের কে দিয়ে সমকামীতা ও ছাত্রীদের বিভিন্ন স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দেওয়া সহ বিভিন্ন অভিযোগ এনে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য ও অভিভাবকরা বিক্ষোভ প্রদর্শন এবং উপ-পরিচালক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক ময়মনসিংহ অঞ্চলিক শিক্ষা অফিস, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

 
লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, কেন্দুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজী শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম নিয়মনীতির কোন তোয়াক্কা না করে শিক্ষার্থীদের কে দিয়ে জোর পূর্বক তার সাথে সকাীতায় বাধ্য হচ্ছে। ছাত্রদের বাড়ীতে রাত্রি যাপন করে।
এ ছাড়া বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের ছাত্র ছাত্রীদের কে তার কাছে ডেকে নিয়ে ইচ্ছার বিরোদ্ধে সকল শিক্ষার্থীদের সামনে জরিয়ে ধরা, বিয়ে পড়ানোর রীতি সম্পন্ন করার অভিযোগ উঠেছে। এতে করে শিক্ষার্থীরা পড়েছে বেকায়দায়।

 

 
এঘটনা এলাকায় জানাজানি হলে এলকাবাসী এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ করলে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কান ব্যবস্থা না নিলে এলাকাবাসী আরো ফুসে উঠে। সম্প্রতি এলাকার লোকজন বিদ্যালয় ঘেরাওসহ বিক্ষোভ মিছিল করে। এলাকাসীর সাথে সকল পরীক্ষার্থী শিক্ষাথীরা পরীক্ষা বর্জন করে প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করতে থাকে । ঐসময় বিদ্যালয়ের পধান শিক্ষক বি.এ হাফিজুর রহমান ও বিদ্যালয়ের ম্যানিজিং কমিটির সভাপতি বীরতারা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আহমদ আল ফরিদ আইনঅনুযায়ী দ্রুত শাস্তির আশ^াস দিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

 
অভিযুক্ত ঐ শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করায় অভিযুক্ত শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম এলাকার ছাত্রলীগের সদস্য জাফর সহ ৭ জনের বিরুদ্ধে টাঙ্গাইল কোর্টে একটি ৭ ধারা মামলা করে মিথ্যা হয়রানির শিকার করছে বলে ছাত্রলীগ সদস্য জাফর সহ ভোক্তভূগীরা জানায়।
কেন্দুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সাংবাদিকদের জানান, ওবাইদুল মাষ্টার এর বিরোদ্ধে যে সকল অভিযোগ শিক্ষার্থীরা করেছেন সকল অভিযোগ তদন্ত করে দেখেছি সকল কিছুই সঠিক আমি এই খারাপ শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও বহিস্কার চাই। এবং কী প্রশাসনিক ভাবে ব্যবস্থ্যা নেওয়ার জন্য উপ-পরিচালক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক ময়মনসিংহ অঞ্চলিক শিক্ষা অফিস, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

 
অভিযুক্ত শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম সকল ঘটনা অস্বীকার করেন। আর কোন কথা বলেননি। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মতিউর রহমান খান সাংবাদিকদের বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর আমি সজমিনে তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। বর্তমানেও তার অভিযোগ টি তদন্তাধীন অবস্থায় রয়েছে। তাহার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থ্যা গ্রহন করা হবে।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com