বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০৪:০১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহীতে বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্য উদ্ধার ও আটক-৫২ শিবগঞ্জে ২ মাদকসেবীর ৩ মাসের সাজা প্রকৃতপক্ষে আ’ লীগ সরকারই আলেমদের কল্যাণে কাজ করে : মেয়র লিটন ভয়াবহ গ্রেনেড হামলার ১৫তম বার্ষির্কী আজ প্রাথমিক শিক্ষকদের চর এলাকায়, আসছে চর ভাতা প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে নানা প্রকল্প গ্রহণ করেছে সরকার, রাসিক মেয়র অপহরণ নয় প্রেমের টানে প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়েছিল স্কুলছাত্রী : পুলিশ সুপার রাজশাহীতে ছেলে হারানো ডিডির সূত্র ধরে ল্যাপটপ উদ্ধার: শিক্ষার্থী আটক রাজশাহীর ভদ্রা পার্কে আপত্তিকর অবস্থায় ৯ শিক্ষার্থী ধরা গোদাগাড়ীতে স্ত্রীর উপর অভিমান করে প্রবাসী যুুবকের আত্মহত্যা

গাইবান্ধায় পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়া আসামি বন্দুকযুদ্ধে নিহত

গাইবান্ধায় পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়া আসামি বন্দুকযুদ্ধে নিহত

আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে একাধিক মামলার আসামি চিনু মিয়া (৩৮) নিহত হয়েছেন। চিনু গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার দরবস্ত ইউনিয়নের বিশ্বনাথ গ্রামের মৃত নুরু ইসলামের ছেলে।
বৃহস্পতিবার দিনগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার কাটাখালি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গোবিন্দগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ একেএম মেহেদী হাসান বলেন, রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাতে পুলিশ কাটাখালি বাঁধ এলাকায় অবস্থান নেয়। এসময় চিনু ও তার সহযোগীরা কাটাখালি বাঁধ এলাকা দিয়ে পালানোর সময় পুলিশ তাদের আটকের চেষ্টা করে।

 

চিনু ও তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান চিনু। ওই সময় পালিয় যায় তার সহযোগিরা। পরে বন্দুকযুদ্ধে আহত দুই পুলিশের সদস্যকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।
এর আগে, বুধবার (৭ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে উপজেলার বিশ্বনাথ গ্রামের বাঁধের ওপর থেকে পুলিশের কাছ থেকে হাতকড়া পড়া অবস্থায় ১৮ মামলার আসামি চিনুকে ছিনিয়ে নেয় তার সহযোগি ও স্বজরা। চিনুর বিরুদ্ধে অস্ত্র আইন, হত্যা চেষ্টা, প্রতারণা, চাঁদাবাজি, অগ্নিসংযোগ ও নাশকতাসহ ১৮টি মামলা আদালতে বিচারাধীন। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলার গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ছিল।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com