সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৪:৩১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সাপাহারে কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত নওগাঁয় জেলা পর্যায়ে ৪৮তম আন্ত:স্কুল ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন রাণীনগরে গভীর নলক’পে বিদ্যুৎ সংযোগ না পাওয়ায় হুমকির মুখে কয়েকশত বিঘা জমির আবাদ ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুরে খাল খননের ফলে তলিয়ে যাচ্ছে ব্রীজ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হতে পারে ১০টি গ্রাম শাহরুখ নিজেই পোস্ট করলেন ‘মন্নত’এর গণেশ পুজোর ছবি অবৈধভাবে সাগরপথে মালয়েশিয়ায় পালানোর সময় ১৬ রোহিঙ্গা আটক আফগানিস্তানকে ২-১ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে নাটোরে ট্রেনে কাটা পড়ে যুবক নিহত

এবার রাজশাহীতে আলোচিত অধ্যক্ষ রিপনের হাতে শিক্ষক লাঞ্ছিত

এবার রাজশাহীতে আলোচিত অধ্যক্ষ রিপনের হাতে শিক্ষক লাঞ্ছিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীতে এক অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে শিক্ষক লাঞ্ছিতের ঘটনা ঘটেছে। রাজশাহীতে সাংবাদিক সম্মেলনের টাকাকে কেন্দ্র করে ম্যানেজিং কমিটি, শিক্ষক-কর্মচারীর সামনেই অধ্যক্ষ’র হাতে শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।গত ১৫ই আগষ্ট বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার সময় রাজশাহী নগরীর উপকণ্ঠ কাপাশিয়া এলাকার মহানগর টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট ইন্সটিটিউটের কলেজ প্রাঙ্গণের বঙ্গবন্ধু কর্ণার রুমে এ ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় আজ রবিবার বিচারের দাবিতে ভুক্তভুগী শিক্ষক উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছে।নিরাপত্তার স্বার্থে নগরীর কাটাখালী থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছে। কাটাখালী থানায় সাধারন ডায়েরী নং- ৭৪১, তাং-১৮-০৮-২০১৯।

 

জানা যায়, মহানগর টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ মো: জহুরুল আলম রিপন একই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক মো: আবুল কালাম আজাদকে দিয়ে লাঞ্ছনার স্বীকার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক মো: রায়হানুল ইসলামকে অধ্যক্ষের কাছে নিয়ে যান, শিক্ষক রায়হান তার কাছে গেলে ২০১৮ সালের ফেব্রয়ারী মাসে ০৬ তারিখে  অধ্যক্ষের নিজ প্রয়োজনে করা সাংবাদিক সম্মেলনের খরচের টাকা ফেরত চান, টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে দরজা বন্ধ করে বুকের উপর পা তুলে অকথ্য ভাষায় পিতা-মাতা তুলে গালিগালাজ করেন অধ্যক্ষ।

 

আরো বলেন টাকা না দিলে শিক্ষক-কর্মচারী দিয়ে যে কোন সময় হাত-পা ভেঙ্গে দেওয়া হবে, না হলে শরীরের মাংশ কেটে টাকা পরিশোধ কেরে নেওয়া হবে বলেও প্রাণনাশের হুমকি দেন অধ্যক্ষ, টাকা না দেওয়ার আগ পযর্ন্ত প্রতিষ্ঠানে আসতে বারণ করে দেন অধ্যক্ষ রিপন। একই কায়দায় আরো শিক্ষকের কাছ থেকে টাকা আদায় করেন তিনি

 

এ ব্যাপারে শিক্ষক মো: রায়হানুল ইসলাম বলেন আমার কাছে কোন টাকা পাবেনা, ২০১৮ সালে ৪ই ফেব্রয়ারী থেকে ছাত্রী যৌন হয়রানি নিয়ে আলোচনায় আসেন অধ্যক্ষ, এ নিয়ে স্যার ২০১৮ সালের  ০৬ ফেব্রয়ারী  সাংবাদিক সম্মেলন করেন, সাংবাদিকদের অনারিয়াম ও খাওয়া দরুন খরচ হয় আমি সেখানে ছিলাম এজন্য খরচের এ টাকা আমার কাছে ফেরত চান, আমি এর আগেও বলেছি আপনার প্রয়োজনে আপনি সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন আমি কেন টাকা দিবো?আমাকেও বিভিন্ন ভাবে চাপ দিচ্ছিলিলেন আমি নিরব ছিলাম ১৫ই আগষ্টে আমাকে লাঞ্ছিত করেছে।

 

 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক শিক্ষক বলেন, অধ্যক্ষ স্যার প্রায় এক বছর বরখাস্ত ছিলেন শিক্ষক কর্ম-চারীরাও স্যারের বিপক্ষে ছিলেন ২১ মার্চ ২০১৯ পৃনবহাল হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন জনকে নানা ভাবে চাপ দিয়ে স্যারের দলে নিয়েছেন, টাকা আদায় করেছেন, আরও কিছু শিক্ষককে একই কাদায় লাঞ্ছিত হতে হবে কিছু দিন আগেও সহকারী অধ্যাপক মো: মোকসেদ আলীকে কম্পিউটার কাম প্রদর্শক রতন আলী ও নাইট গার্ড লাঞ্ছিত করেছেন।

 

এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির সভাপতির দায়িত্তে থাকা পবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জাহিদ নেওয়াজ বলেন, বিষয়টি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।এ বিষয়ে কলেজের অধ্যক্ষ মো: জহুরুল আলম রিপন শিক্ষক লাঞ্ছিত করার অভিযোগ অস্বীকার করেন।

 

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে ৪ই ফেব্রয়ারী নিজ অফিস কক্ষেই এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা চালান অধ্যক্ষ, ৩১ শিক্ষক কর্ম-চারীও বিভিন্ন অপকর্ম উল্ল্যেখ করে সভাপতি ও পবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন, এক শিক্ষিকাকে ধর্ষনেরও অভিযোগ উঠে এ নিয়ে এলাকাবাসী তার উপর চড়াও হন, এ নিয়ে এলাকায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করে এলাকাবাসী। পরে এক ছাত্রী ২০১৮ সালে ৮ই মার্চ নারী ও শিশু নির্যতন দমন আইন ৭/৯(৪)(খ) অপহরন ও ধর্ষন চেষ্টার মামলা করেন এ মামলায় ৯ই মার্চ গ্রেফতার হন ১৩ই মার্চ বরখাস্ত হন। মামলা মাথায় নিয়ে ২১ মার্চ ২০১৯ পৃনবহাল হন।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com