সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:১১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সাপাহারে কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত নওগাঁয় জেলা পর্যায়ে ৪৮তম আন্ত:স্কুল ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন রাণীনগরে গভীর নলক’পে বিদ্যুৎ সংযোগ না পাওয়ায় হুমকির মুখে কয়েকশত বিঘা জমির আবাদ ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুরে খাল খননের ফলে তলিয়ে যাচ্ছে ব্রীজ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হতে পারে ১০টি গ্রাম শাহরুখ নিজেই পোস্ট করলেন ‘মন্নত’এর গণেশ পুজোর ছবি অবৈধভাবে সাগরপথে মালয়েশিয়ায় পালানোর সময় ১৬ রোহিঙ্গা আটক আফগানিস্তানকে ২-১ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে নাটোরে ট্রেনে কাটা পড়ে যুবক নিহত

রাজশাহীর মতিহারে বিপ্লব হত্যা মামলায়, ভগ্নিপতি রনির ফাঁসির আদেশ

রাজশাহীর মতিহারে বিপ্লব হত্যা মামলায়, ভগ্নিপতি রনির ফাঁসির আদেশ

মাসুদ রানা রাব্বানী : রাজশাহী নগরীর মতিহারে ভগ্নিপতিকে ছুরি মেরে হত্যার অপরাধে রনি আহমেদ নামে এক ব্যক্তির ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল রোববার সকালে রাজশাহীর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক অনুপ কুমার এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামী রনি রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানধিন কাজলা কেডি ক্লাবের সামনে ধরমপুর এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে। মামলায় হাবিবুর রহমানও আসামি ছিলেন। তবে আদালত তাকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন।মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, হাবিবুরের জামাতা বিপ্লব হোসেনকে (২৩) ২০১৭ সালের ৩ মার্চ ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। বিপ্লবের বাড়িও একই এলাকায়। সে ধরমপুর এলাকার মৃত এরশাদ আলীর ছেলে। বিপ্লবকে হত্যার ঘটনায় নগরীর মতিহার থানায় তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন তার বড় ভাই আসাদ জামান ওরফে বুলবুল। তবে অভিযোগপত্র থেকে এক আসামিকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছিল।

 
মামলার বাদী জানান, বিপ্লব ভালোবেসে রনির ছোট বোন লিজা খাতুনকে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু এই বিয়ে মেনে নেননি রনি। এ নিয়ে রনি ও বিপ্লবের মধ্যে দ্বন্দ চলে আসছিল। ২০১৭ সালের ৩ মার্চ বাড়ির সামনে ইট রাখাকে কেন্দ্র করে বিপ্লব ও রনির মধ্যে কথা-কাটাকাটি শুরু হয়। এরই একপর্যায়ে বিপ্লবকে ছুরিকাঘাত করে রনি পালিয়ে যান। এতে ঘটনাস্থলেই বিপ্লব মারা যান।

 
আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এন্তাজুল হক বাবু জানান, মামলায় প্রত্যক্ষদর্শী পাঁচজন সাক্ষী ছিলেন। সমস্ত সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে আদালত এ রায় ঘোষণা করলেন। এন্তাজুল হক জানান, আসামি রনি গ্রেফতার হওয়ার পর উচ্চ আদালত থেকে জামিনে ছিলেন। মামলার যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন থেকে তিনি পলাতক। তার অনুপস্থিতিতেই রায় ঘোষণা করা হয়েছে। তবে রায় ঘোষণার সময় আসামি হাবিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তিনি বেকসুর খালাস পেয়েছেন। আসামিপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন আইনজীবী মিজানুল ইসলাম।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com