বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:৩৩ অপরাহ্ন

বরিশাল বিএনপির নিবেদিত প্রাণ সালেহ আহমেদকে ভুলে গেছে দল, মনঃক্ষুণ্ণ তার পরিবার

বরিশাল বিএনপির নিবেদিত প্রাণ সালেহ আহমেদকে ভুলে গেছে দল, মনঃক্ষুণ্ণ তার পরিবার
বরিশাল বিএনপির নিবেদিত প্রাণ সালেহ আহমেদকে ভুলে গেছে দল, মনঃক্ষুণ্ণ তার পরিবার

নিউজ ডেস্ক : বরিশাল বিএনপির অন্যতম নেতা এএইচএম সালেহ আহমদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে কোনো কর্মসূচি না দেয়ায় বিএনপির প্রতি মনঃক্ষুণ্ণ মনোভাব প্রকাশ করেছে তার পরিবার। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদেরও কোনো উদ্বেগ ছিলো না। অথচ বিএনপির জন্য এই নেতার ত্যাগ স্মরণীয়।

জানা গেছে, ২৪ আগস্ট সালেহ আহমদের পরিবারের পক্ষ থেকে তার মৃত্যু বার্ষিকী পালন করা হলেও খোঁজ নেননি বিএনপির একটি কর্মীও। অথচ এক সময়ে জেলা বিএনপি’র সাবেক এই সিনিয়র সহ-সভাপতি’র ডাকে কেপে উঠতো রাজপথ। সালেহ আহমেদ দলের প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকেই বিএনপি’র একজন সক্রিয় কর্মী ছিলেন। বানারীপাড়ায় জন্ম নেয়া এএইচএম সালেহ উদ্দিন বিগত ওয়ান ইলেভেনের সময় বরিশাল জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিলেন।

বিএনপির এই তুখোড় নেতা তত্ত্বাবধায়ক সরকার বিরোধী আন্দোলনে রাজপথে নেতৃত্ব দিয়েছেন জোড়ালোভাবে। এর আগে বানারীপাড়া উপজেলা বিএনপি’র সভাপতিও ছিলেন সালেহ আহমেদ। সর্বশেষ বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র প্রধান উপদেষ্টা পদে থাকাবস্থায় ২০১৮ সালের ২৪ আগস্ট তিনি মৃত্যুবরণ করেন। সে অনুযায়ী গতকাল ২৪ আগস্ট ছিলো তার প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী।

বিএনপির গা-ছাড়া মনোভাব ব্যক্ত করে সালেহ আহমদের ছেলে মাহমুদ শাহরিয়ার বাপ্পি জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে সালেহ উদ্দিন আহমেদ এর রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া-মোনাজাত ও এতিমদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হলেও বরিশাল জেলা বা মহানগর বিএনপি এমনকি কেন্দ্রীয় বিএনপি থেকেও কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। তার মৃত্যু বার্ষিকীতে বিএনপি বা তার অঙ্গ সংগঠন কোন আলোচনা বা দোয়া মোনাজাতের আয়োজনও করেননি। এমনকি পরিবারের খোঁজ খবর নেয়ারও প্রয়োজন মনে করেননি কোনো নেতা-কর্মী।

সালেহ আহমদের স্ত্রী শাহনাজ সালেহ। যিনি মহিলা দল বরিশাল জেলা কমিটির সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় মহিলা দলের সাবেক সহ-সভাপতি। অনেক দিন ধরেই তিনি শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছেন। চিকিৎসা করাচ্ছেন স্বজনরা। কিন্তু তারও খোঁজ নেয়ার প্রয়োজন মনে করেনি নেতারা। ফলে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে বিএনপি’র রাজনীতি এবং রাজনৈতিক নেতাদের নিয়ে।

বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সভাপতি এবায়েদুল হক চাঁন বলেন, সালেহ আহমদের মৃত্যু বার্ষিকীর বিষয়টি আমার স্মরণে ছিলো না। তাছাড়া পরিবারের পক্ষ থেকেও আমাদের এ বিষয়ে কিছু জানায়নি। আর পরিবার না জানালে আমরা কিভাবে জানবো? আমাদের জানালে তার স্মরণে কিছু একটা করা যেত। তবে তার স্ত্রী’র অসুস্থতার বিষয়টি আমার জানা আছে।Ref: http://www.banglanewsbank.com

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

©2014 - 2019. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com