শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯, ০৭:১৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট টিকবে না: কাদের এসএসসি পরীক্ষা ২০১৯: প্রশ্নফাঁসকারী চক্রকে ধরতে মাঠে থাকছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গণতন্ত্রের প্রতি অনীহা ও পরনির্ভরশীলতার কারণে বিএনপি জোটের অধঃপতন লিঙ্গবৈষম্য কমিয়েছে, নারীর উন্নয়নে আরও নিশ্চিত হতে বদ্ধপরিকর সরকার সরকারের লক্ষ্য উন্নত রাষ্ট্র গড়া, সন্ত্রাসবাদ নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্র-ভারতের চেয়েও এগিয়ে প্রশ্নফাঁস রোধে ফেসবুকে ছদ্মবেশে ঘুরছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী রাণীনগরে উপজেলা নির্বাচনে আ’লীগে নতুন মুখের হিড়িক ॥ নিরব ভ’মিকায় বিএনপি খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে প্রতিটি জেলায় টিম গঠন করতে হবে- খাদ্যমন্ত্রী সাবেক মহিলা আ.লীগ সভাপতি আশরাফুন্নেছা আর নেই রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক মামুনুর রশিদের কাপ্তাইয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন

ভোলার মেঘনা-তেতুলিয়ায় ইলিশ ধরা শুরু

ভোলার মেঘনা-তেতুলিয়ায় ইলিশ ধরা শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক: ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম হিসেবে ভোলার মেঘনা-তেতুলিয়া নদীতে দীর্ঘ ২২ দিন মাছ ধরার উপর নিষেধাজ্ঞা শেষে আজ সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে ইলিশ শিকার। ইতোমধ্যে ভোলার প্রায় দেড় লাখ জেলে জাল ও নৌকা নিয়ে মাছ ধরতে প্রস্তুত রয়েছে। ঘাটগুলোতে মাছ কেনার জন্য আড়ৎদাররাও প্রস্তুতি নিচ্ছে।ভোলার মেঘনা-তেতুলিয়ায় ইলিশ ধরা শুরু

 

রোববার ভোলার বিভিন্ন মাছ ঘাট ঘুড়ে দেখা যায় জেলেরা কেউ নৌকা মেরামত করছে কেউবা জাল ঠিক করছে। রাত ১২ বাজলেই তারা নদীতে মাছ শিকারে বের হবেন তারা। জেলার প্রায় সকল ঘাটের চিত্র একই।

ভোলার তুলাতুলি ঘাটের জেলে ইউছুফ মাঝী জানান, গত ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত (২২দিন) আমরা অনেক অভাবে থেকেও সরকারি নিষেধাজ্ঞা মেনে নদীতে যাইনি। এখন অভিযান শেষে হয়েছে তাই জাল-নৌকা নিয়ে নদীতে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

নাছির মাঝি ঘাটের জেলে নুর নবী মাঝী জানান, সরকার আইন করায় আমরা ২২ দিন মাছ ধরি নাই। এখন অভিযান শেষ তাই মাছ ধরতে যাবো। আশা করি যে মাছ পাবো তা দিয়ে সংসার চালিয়ে দেনা পরিশোধ করতে পারবো।

দৌলতখান উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের শহিদ মাঝী জানান, সরকার যে অভিযান দিয়েছে এটা আমাদের জন্যই ভালো হয়েছে। এখন অভিযান শেষ নদীতে মাছ ধরতে যাবো। আশা করি মাছ পেলে ঋনের দেনা থেকে মুক্ত হতে পারবো।

ইলিশা ঘাটের জেলে মফিজল মাঝি বলেন, আমরা সরকারের আইন মেনেছি। কিন্তু সরকার আমাদের জন্য যে চাল বরাদ্ধ করেছে তা জেলেরা না পেয়ে রিক্সা চালক ও অটো চালকরাও নিয়েছে। আমাদের মধ্যে অনেক জেলেই এ চাল থেকে বঞ্চিত হয়েছে।

তুলাতুলি ঘাটের প্রায় ৫-৭ জন জেলে অভিযোগ করে বলেন, সরকার মা ইলিশ রক্ষায় অভিযান দিয়েছে। তারা সেই অভিযান মানলেও তাদের মধ্যে অনেককে কোন সহায়তা দেয়া হচ্ছে না। এমনকি কেউ খোঁজ খবরও নিচ্ছে না। ঠিক মতো এসব জেলের মুখে অন্য জুটে না বলে জানান তারা।

এদিকে, ভোলায় দুই লক্ষাধিক জেলের মধ্যে ১ লাখ ৩২ হাজার ২৬০ জন জেলে নিবন্ধিত রয়েছে। কিন্তুু মাথা পিছু ২০ কেজি করে চাল বরাদ্ধ হয়েছে ৮৮ হাজার ১১১ জেলের নামে। গত বছর বরাদ্ধ হয়েছে ৮৬ হাজার জেলের নামে । তাই এ বছরও সকল জেলের ভাগ্যে সরকারি সামান্য চাল সহায়তাও জুটবে না।

সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান জানান, এবছর অন্যান্য বছরের তুলনা জেলেদের মাঝে অভিযানকালিন সময়ে ব্যাপক সাড়া মিলেছে। আসা আমাদের অভিযান সফল হবে।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com