মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৪৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নওগাঁর হাট-বাজারে মাছ ধরার প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী চাঁই কা খলশানি বিক্রির ধুম ফাহাদ হত্যার বিচার দ্রুত শেষ করতে আইনমন্ত্রীকে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর যশোরে ইউপি চেয়ারম্যানের ৬ মাসের কারাদণ্ড ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের নতুন প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী রাজশাহীতে মঙ্গলবার রাত ১২টা পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে যুব মহিলা লীগ নেত্রী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আটক তিন দিনের সরকারি সফরে কাতার যাচ্ছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান প্রধান চালক ছাড়াই ঈশ্বরদী -রাজশাহী গেল ‘পাবনা এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি রাজশাহী ও ময়মনসিংহে নতুন বিভাগীয় কমিশনার শেখ হাসিনা-সায়মা-টিউলিপকে মন্ত্রীসভার অভিনন্দন

ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের প্রধান সন্দেহভাজন অমিত সাহা আটক

নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক অমিত সাহাকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। আলোচিত এ হত্যাকাণ্ডের প্রধান সন্দেহভাজন হওয়া সত্ত্বেও হত্যাকাণ্ডে জড়িত ১৯ জনের তালিকায় তার নাম না থাকা নিয়ে চলছিল ব্যাপক সমালোচনা।

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সবুজবাগ থেকে বেলা ১১টার পর তাকে আটক করা হয় বলে নিশ্চিত করেন ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম জানান, রাজধানীর সবুজবাগ থানাধীন রাজারবাগ কালীবাড়ি এলাকায় এক আত্মীয়ের বাসা থেকে অমিত সাহাকে আটক করা হয়েছে। তাকে ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হচ্ছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ফাহাদ হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

ফাহাদকে যে কক্ষে খুন করা হয় সেই ২০১১ কক্ষের বাসিন্দা অমিত। হত্যাকাণ্ডের আগে ১৭ ব্যাচের (ফাহাদের সহপাঠী) এক শিক্ষার্থীকে অমিত সাহা মেসেঞ্জারে জিজ্ঞেস করেন, আবরার ফাহাদ কি হলে আছে?

এ ধরনের একটি স্ক্রিনশট সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ১৭ ব্যাচের ওই শিক্ষার্থী নিজের পরিচয় প্রকাশ করতে না চাওয়ায় তারই এক সিনিয়র এ বিষয়টি ফেসবুকে প্রকাশ করেন।

আলোচিত এ হত্যাকাণ্ডে এখন পর্যন্ত মামলায় নাম থাকা ১৯ জনের মধ্যে ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে হত্যাকাণ্ডের পর সবচেয়ে আলোচিত নাম ছিল অমিত সাহা। কিন্তু কোনো এক অজ্ঞাত কারণে মামলায় তার নাম রাখা হয়নি। এরপর অমিত সাহার নানান কুকীর্তি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সরব হয়ে ওঠে। ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে যে তার সম্পৃক্ততা রয়েছে তার প্রমাণ মেলে মেসেঞ্জার অ্যাক্টিভিটিতে।

এর আগে রোববার (৬ অক্টোবর) রাতে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের নেতারা পরিকল্পিতভাবে ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করে মরদেহ সিঁড়িতে ফেলে রাখে। পরে ভিডিও ফুটেজে হত্যাকারীদের শনাক্ত করা হয়। ফাহাদ হত্যার বিচার, আসল অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আট দফা দাবিতে আন্দোলনে ফুঁসছে বুয়েটসহ দেশের সব শিক্ষাঙ্গন। এরই মধ্যে আটক করা হলো অমিত সাহাকে।


©2014 - 2019. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com