মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৪:২৪ অপরাহ্ন

রাজশাহীতে পৌর মেয়র আব্বাস আলীর অনুষ্ঠানে হামলা, কার্যালয়সহ জাতীয় নেতার ছবি ভাংচুর

রাজশাহীতে পৌর মেয়র আব্বাস আলীর অনুষ্ঠানে হামলা, কার্যালয়সহ জাতীয় নেতার ছবি ভাংচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী নগরীর উপকন্ঠ পৌর মেয়র আব্বাস আলীর অনুষ্ঠানে হামলা, কার্যালয়সহ জাতীয় নেতা শহীদ কামারুজ্জামান হেনা ও রাসিক মেয়র লিটনের ছবি ভাংচুর করেছে দূর্বৃত্তরা। শুক্রবার বিকাল ৩টার দিকে নগরীর কাটাখালী থানাধীন হরিয়ান রেললাইন এর পাশে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় পাল্টাপাল্টি হামলায় টুটুল (২৬) নামের এক যুবক আহত হয়েছে। আহত টুটুল কাটাখালী থানাধীন বাখরাবাজ এলাকার জোহার ছেলে।
এদিকে স্থানীয়রা জানায়, রাজশাহীর কাটাখালি পৌর মেয়র আব্বাস আলীর একটি অনুষ্ঠানে হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে মেয়র আব্বাস আলী ও তার পরিবারের সদস্যরা রক্ষা পেলেও তাদের একজন গুরুতর আহত হয়েছে। তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরের পর পৌর এলাকার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাখরাবাজ দক্ষিণপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। সেখানে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতার পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের প্যান্ডেল ও ডেকোরেটরের মালামাল পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তারা আরো বলেন, আহত টুটুল সাবেক চেয়ারম্যান মাসদুর রহমানের ছেলে মিজানের পার্টনার ছিল।

 
শুক্রবার বিকেলে স্থানীয়দের আয়োজনে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতার পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হন পৌর মেয়র আব্বাস আলী। তিনি পরিবার নিয়ে সেখানে যান। দুপুরের খাবারের আয়োজন চলাকালীন স্থানীয় আবু সামাহ ও তার ভাই শরিয়তের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত অতর্কিতভাবে মেয়র অব্বাসকে ঘিরে ঘরে হামলার চেষ্টা করে। এ সময় স্থানীয়রা তাদের বাধা দিলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে অনুষ্ঠানের প্যান্ডেল ও ডেকোরেটরের মালামাল পুড়িয়ে দেয়।

 

 

তাদের হামলায় সেলিম নামের এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছেন। পরে আহত অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছেন। স্থানীয়রা জানায় পূর্বের একটি ঘটনার জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে।
কাটাখালি পৌরসভার মেয়র আব্বস আলী বলেন, দুপুরের দিকে জামায়াতের প্রার্থী মাজেদুরের ছেলে মিজানুরের ব্যাবসায়িক পার্টনার টুটুল তার সঙ্গীয় একদল দুর্বৃত্তদের নিয়ে পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহাগকে আক্রমন করে। ঘটনা টের পেয়ে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে তারা পালানোর চেষ্টা করে। এসময় টুটুলকে এলাকাবাসী ধরে ফেলে ও চড়-থাপ্পড় দেয়।
পরে এঘটনাকে কেন্দ্র করে আবু সামাহ দেশীয় অস্ত্রসহ তার দলবল নিয়ে সন্ধ্যায় বাখরাবাজ দক্ষিণ পাড়ার স্কুলের অনুষ্ঠানে দলবল দিয়ে উপস্থিত হয় এবং প্যান্ডেলে আগুন লাগিয়ে দেয় ও থালা-বাসন, চেয়ার টেবির ভাঙচুর করে।মেয়র আরও জানান, তারা এসময় স্থানীয় যুবলীগের নেতা সেলিমকে ছুরিকাঘাত করে এবং বাখরাবাজ দক্ষিণ পাড়া আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাংচুর করে। এসময় কার্যালয়ে থাকা জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ কামারুজ্জামান হেনা ও রাসিক মেয়র লিটনের ছবিও ভাংচুর করা হয়। এবিষয়ে মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানান মেয়র আব্বাস।
জানতে চাইলে কাটাখালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নিবারন চন্দ্র বর্মণ জানান, শুক্রবার দুপুর ৩টার দিকে পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনায় কাটাখালী পৌর ছাত্রলীগের সাবেক পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক টুটুলকে ডানপায়ের হাটুর নিচে ও উপরে ছোরা দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে দূর্বৃত্তরা।
পরে তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে আহত টুটুল রামেকের ৩১ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে।তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোন পক্ষের কেউ মামলা বা অভিযোগ দায়ের করেনি। আমরা নিজ উদ্যোগে অপরাধিদের গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছি।


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com