বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১০:৫৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
পাবনায় পতাকা উৎসবে একহাজার পতাকা বিতরন পাবনার সাঁথিয়ায় আলেমদের সাথে মতবিনিময়ের মধ্য দিয়ে শামসুল হক টুকু এমপির নির্বাচনি প্রচারনা শুরু নৌকার বিজয় না হলে উন্নয়ন থেমে যাবে: সমাজসেবী নিঘাত পারভীন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনে জনগণের মুখোমুখি এমপি প্রার্থীরা তৃণমুলে কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করবে বিএনপি : এমপি আয়েন আ.লীগ সমর্থকদের উপর হামলার অভিযোগ নিয়ে ইসিতে ইমাম রাজশাহীতে নাচোল, গোমস্তাপুর, ভোলাহাটের নবীন ভোটারদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ভোটের প্রচারে সরকারি গাড়ি নয়, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ব্যবহার করছেন একুশে গ্রেনেড হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ি সন্ত্রাসী ও জঙ্গীবাদ মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে নৌকা প্রতিককে জয়ী করতে হবে- আসাদ পবার দর্শনপাড়া ইউপিতে মিলনের গণসংযোগ

আব্বাস-আফরোজা বৈধ প্রার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক::ঢাকা-৯ আসনে বিএনপির প্রার্থী আফরোজা আব্বাসের মনোনয়ন পত্র বৈধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। ঢাকা-৮ আসনে বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে তার স্বামী বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের মনোনয়নও।

শনিবার ইসির অস্থায়ী এজলাসে আপিল শুনানি শেষে তার মনোনয়নপত্র বহালের আদেশ দেয় নির্বাচন কমিশন।

গত রবিবার প্রার্থিতা যাচাই বাছাইয়ের সময়ে খেলাপি ঋণের কারণে বাদ পড়ে যান আফরোজা আব্বাস।

স্ট্যান্ডার্ড চাটার্ট ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক আফরোজা আব্বাসের বিরুদ্ধে ঋণ খেলাপির অভিযোগ আনে।এছাড়া আফরোজা ঋণ খেলাপি এই মর্মে বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি চিঠি আসে প্রার্থীতা বাছাইয়ের সময়।

আর মির্জা আব্বাসের প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।আর আব্বাসের প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণার বিরুদ্ধে আপিল করেন ওই আসনে মহাজোটের রাশেদ খান মেনন।

আফরোজার আবেদনের ওপর শুনানি হয়েছিল শুক্রবার। তবে আদেশ না দিয়ে সেটি স্থগিত রাখা হয়। একদিন নির্বাচন কমিশনের আদেশ পক্ষে আসার পর আফরোজার আইনজীবীরা আনন্দ প্রকাশ করেন। তিনি ওই আসনে আওয়ামী লীগের শক্তিশালী প্রার্থী সাবের হোসেন চৌধুরীর মোকাবেলা করবেন।

নির্বাচন কমিশনের আদেশের পর মির্জা আব্বাসের আইজীবী বলেন, ‘রাশেদ খান মেনন মির্জা আব্বাসের মনোনয়ন বাতিল চেয়ে আবেদন করেছিলেন। সেখানে বলা হয়েছে, মির্জা আব্বাস সঠিক রাজনৈতিক তথ্য দেননি এবং হলফনামা সঠিকভাবে পূর্ণ করেনি। আমরা কমিশনকে বলেছি মির্জা আব্বাস জানেন না কিন্তু রাশেদ খান মেনন কেমন করে জানে। এটা একটি হাস্যকার আপিল আবেদন ছিল। এক্ষেত্রে কমিশন বলেছেন সবাই নির্বাচন করুক।’

মির্জা আব্বাস বলেন, ‘এমন অভিযোগে আমি নিজেও আশ্চর্য হয়েছি। আমাকে আটকানোর জন্য তো মাঠ আছে। কিন্তু মেনন সাহেব নিজেই ফাঁকা মাঠে গোল দেওয়ার চেষ্টা করছে। মাঠে আসেন আমরা খেলব।’


©2014 - 2018. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com