সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ১২:০০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

গোদাগাড়ী থানার ওসির অপসারণ চায় আদিবাসীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৮ মার্চ, ২০২২
গোদাগাড়ী থানার ওসির অপসারণ চায় আদিবাসীরা

ধান খেতে পানি না পেয়ে আদিবাসী কৃষক অভিনাথ মার্ডি ও রবি মার্ডি আত্মহত্যার প্ররোচনার সঙ্গে জড়িত গভীর নলকুপ অপারেটর সাখাওয়াত হোসেনকে দ্রুত গ্রেপ্তার ও সুষ্ঠ বিচারের দাবিতে রাজশাহীতে মানববন্ধন করা হয়েছে। একই সাথে গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলামের মামলা নিতে গড়িমসি ও ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার অভিযোগ তুলে ওসিকে অবিলম্বে থানা হতে প্রত্যাহারের দাবি জানান।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদ রাজশাহী জেলার সভাপতি বিমল চন্দ্র রাজোয়ারের সভাপতিত্বে রোববার (২৮ মার্চ) জাতীয় আদিবাসী পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার আয়োজনে নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে এই মানববন্ধনে আদাবাসি নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বিভিন্ন পেশার মানুষ অংশ গ্রহন করেন।

মানববন্ধন থেকে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ তুলে গোদাগাড়ী থানার ওসিকে অপসারণের দাবি জানানো হয়।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন বলেন, আমরা এই হত্যার বিচার চাই । ডিপ টিউবওয়েল অপারেটর এবং এর সাথে যারা ইন্ধনদাতা আছে তাদের আইনের আওতায় সেই সাথে গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম মামলা নিতে গড়িমসি করেছে তারও আমরা অপসারণ ও শাস্তি চাই।

জাতীয় আদিবাসী পরিষধের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জানান, আদিবাসীরা এই এলাকায় অবহেলিত ও লাঞ্চিত হচ্ছে। এটার সাথে জড়িত অপরেটর শাখাওয়াতের বিচার চাই এবং যে ওসি আদিবাসীদের বিপক্ষে অবস্থান নেয় সেই ওসির অপসারণ দাবি করেন তিনি।

জাতীয় আদিবাসী পরিষদ বিমল চন্দ্র রাজোয়ার বলেন, অভিনাথ মার্ডি ও রবি মার্ডি যে হত্যা হয়েছে তার সুষ্ঠ তদন্ত করে বিচার চাইছি। যে পরিবার গুলো ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে তার ক্ষতিপূরণ দাবি করছি। সেই সাথে কামরুল নামে যে ওসি গোদাগাড়ীতে আছে যিনি অপরাধ চক্রের সাথে জড়িত আছে। আদিবাসীদের বিপক্ষের মানুষ । যেদিন মারা যায় তিনি সেদিন হেসে হেসে কথা বলেছেন এবং তিনি বলেছেন আদিবাসীরা নাকি চুয়ানি (দেশীয় মদ) খেয়ে মারা গেছেন। এরকম বাজে ওসি যদি গোদাগাড়ীতে থাকে তাহলে আদিবাসী অধ্যাষিত এলাকা হওয়ায় এমন ওসি থাকতে পারে না। এমন ওসির অতিসত্তর অপসারণ ও প্রত্যাহার চাই বলে জানানা।

রাজশাহী মহিলা পরিষদের সভাপতি কল্পনা রায় বলেন, যে হত্যা কান্ড হয়েছে তা ন্যাক্কার জনক এর জড়িতদের সাথে সকলের শাস্তি দাবি জানাচ্ছি। পাশাপাশি বলবো গোদাগাড়ী থানার ওসি আদিবাসীদের নিয়ে যে মন্তব্য করেছে তারা নাকি মদ পান করে মারা গেছে এটা খুব লজ্জা জনক প্রশাসনের লোক হয়ে এমন মন্তব্য করতে পারে না। সেকি জানেনা তার বেতনের টাকাটাও হয় জনগণের পয়সায়?। শুধু এই ঘটনা বলে নয় কোন নারী মারা গেলে চরিত্রহীন আর পুরুষ মারা গেলে মদ খেয়ে মারা গেছে এই হচ্ছে আদবাসিদের মূল্যায়ন। আমরা এই ওসির শাস্তি ও অপসারণ দাবি জানাচ্ছি।

মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক গণেক মার্ডি, দপ্তর সম্পাদক সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম, রাজশাহী মহানগর আদিবাসী পরিষদ রাজশাহী মহানগরের সাধারণ সম্পাদক আলিন্দরায় বিশ্বাস, গোদাগাড়ী উপজেলার সভাপতি রবীন্দ্রনাথ হেমব্রম, নাটোর জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক রঘুনাথ এক্কাসহ বিভিন্ন মানবাধিকার, সামাজিক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

গত ২৩ মার্চ রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার নিমঘুটু গ্রামের দুই আদিবাসী কৃষক অভিনাথ মার্ডি ও রবি মার্ডি তাদের ধান খেতে পানি না পেয়ে বিষপানে আত্মহত্যা করেন। এ ঘটনার পর তোড়পাড় শুরু হলে নলকুপ অপারেটরের বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা হয়। তবে এখনো নলকুপ অপারেটর সাখাওয়াতকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
©2014 - 2021. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Theme Developed BY ThemesBazar.Com
%d bloggers like this: