মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৩৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নওগাঁর হাট-বাজারে মাছ ধরার প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী চাঁই কা খলশানি বিক্রির ধুম ফাহাদ হত্যার বিচার দ্রুত শেষ করতে আইনমন্ত্রীকে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর যশোরে ইউপি চেয়ারম্যানের ৬ মাসের কারাদণ্ড ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের নতুন প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী রাজশাহীতে মঙ্গলবার রাত ১২টা পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে যুব মহিলা লীগ নেত্রী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আটক তিন দিনের সরকারি সফরে কাতার যাচ্ছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান প্রধান চালক ছাড়াই ঈশ্বরদী -রাজশাহী গেল ‘পাবনা এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি রাজশাহী ও ময়মনসিংহে নতুন বিভাগীয় কমিশনার শেখ হাসিনা-সায়মা-টিউলিপকে মন্ত্রীসভার অভিনন্দন

সাহিত্য-কবিতা-সাংষ্কৃতিক চর্চা বাড়াতে হবে: : মেয়র লিটন

সাহিত্য-কবিতা-সাংষ্কৃতিক চর্চা বাড়াতে হবে: : মেয়র লিটন

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, বিগত সময়ে আমি মেয়র থাকাকালে রাজশাহীতে ১১দিনব্যাপী জাতীয় পর্যায়ের সাংস্কৃতিক কর্মকা- আমরা করেছিলাম।

পরবর্তীতে আমরা সেটি আর করতে পারিনি। কারণ আমি আর থাকতে পারিনি। যারা এসেছিলেন তারা এই সমস্ত বিষয় আদৌ বোঝেন কিনা, বুঝলেও হয়তো তাদের মতো করে বোঝেন।

যেখানে আমাদের সরোজ দেবের মতো মানুষের স্থান নেই, কট্টর মৌলবাদি চিন্তা চেতনা বিরাজ করে, যেখানে কবি-সাহিত্যিকদের জায়গা নেই, উদারপন্থি কোনো চিন্তা চেতনা নেই। এইরকম একটা মানসিকতা সম্পন্ন মানুষের হাতে রাজশাহী শহরটা পড়ে গিয়ে সমস্ত অর্জনটি এলোমেলো হয়ে গেছে। আজকের কবিকুঞ্জের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছি, আবারো আমরা শুরু করছি। ২০১৩ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত আমরা শুধু পিছিয়েই গেছি।

শুধু রাস্তাঘাট, বড় বড় ভবন করলে শহর এগিয়ে যায় না। শহর এগিয়ে যায় সব কিছু মিলিয়ে। শহরের মানুষের মধ্যে সংস্কৃতিক হৃদস্পন্দন যদি না থাকে, মানুষ হয়ে যাবে কৃত্তিম। এই কৃত্তিম মানুষ নিয়ে উন্নয়ন করে কাজ হবে না। সেই কারণেই আমি মনে করে এইধরনের চর্চাকে আরো বাড়াতে হবে। রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের পৃষ্ঠপোষকতায় সাহিত্য-কবিতাসহ সব ধরনের সাংস্কৃতিক চর্চা আগামীতে বাড়াতে চাই।

আজ শনিবার সন্ধ্যায় নগরীর শাহ মখদুম কলেজ প্রাঙ্গনে রাজশাহী কবিকুঞ্জ এর উদ্যোগে দুই দিনব্যাপী ‘জীবনানন্দ কবিতা মেলা-২০১৮’ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন এরিয়া ছোট। এই ছোট পরিসরেও এখানে অনেকগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে। এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করার মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশকে আলোকিত করতে পারি। আপনাদের সঙ্গে নিয়ে আগামী দিনে সেই কাজটি করতে চাই। আপনারা আমাকে সহযোগিতা করবেন।

মেয়র লিটন আরো বলেন, জাতীয় পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী অনেক উন্নয়ন কাজ করছেন। এগুলো যদি আমরা স্থানীয় পর্যায়েও করতে পারি তাহলে দেশের সাথে আমরাও এগিয়ে যাবো। আর সেইকাজগুলো আমি করতে চাই।
সমাপনী দিনে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডা. কবি মাহবুবুর রহমান খান বাদশা এবং গাইবান্ধা থেকে প্রকাশিত

ছোটকাগজ শব্দ এর সম্পাদক কবি সরোজ দেবকে ‘কুবিকুঞ্জ পদক-২০১৮’ প্রদান করা হয়। প্রধান অতিথি মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন দুই কবিকে পদক প্রদান করেন।

কবিকুঞ্জের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক রুহুল আমিন প্রামাণিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক সনৎ কুমার সাহা, শাহ মখদুম কলেজের সাবেক অধ্যাপক কবি তছিকুল ইসলাম রাজা, কবি জুলফিকার মতিন, শাহ মখদুম কলেজ অধ্যক্ষ এসএম রেজাউল ইসলাম প্রমুখ।


©2014 - 2019. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com