মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:৩১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :

জাবি প্রতিবেদক :বুয়শিক্ষাথী আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির
দাবি জানিয়ে নানা কমসূচি পালন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার।
বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষাথীদের বেশ কয়েকটি সংগঠন মানববন্ধন, বিক্ষোভ
মিছিল, সমাবেশ, প্রতিবাদ ও বিবৃতি প্রদান করেছে।
এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের মিছিলে ধাওয়া দিয়ে ক্যাম্পাস থেকে
তাড়িয়ে দেয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকমীরা।
দেখা গেছে, গতকাল বুধবার সকাল ৯টায় আবরার হত্যার বিচার ও দেশ বিরোধী সকল
চুক্তি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে শাখা
ছাত্রদল। মিছিল শেষে অমর একুশে প্রাঙ্গণে সমাবেশ করে। এসময় শাখা
ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকমী ধাওয়া দিলে দ্রুত পালিয়ে যায় ছাত্রদলের
নেতাকমীরা, তবে কোন মারধরের ঘটনা ঘটে নি। সমাবেশে ছাত্রদলের নেতারা আবরার
ফাহাদ হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়ে হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি
দাবি করেন। তারা আরো বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে বিচারের রায় না হলে
দেশব্যাপী দূর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবেন।এছাড়াও অবিলম্বে দেশের স্বার্থ
বিরোধী সকল চুক্তি বাতিলের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।
বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে সহ সভাপতি নবীনূর রহমান নবীন, সহ সভাপতি
ইব্রাহিম খলিল বিপ্লব, সহ সভাপতি মিজানুর রহমান রনি, যুগ্ম সাধারণ
সম্পাদক জহির উদ্দিন মোহাম্মদ বাবর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম হোসেনসহ
বিশ-পচিশ জন নেতাকমী উপস্থিত ছিল।
মিছিলে ধাওয়ার বিষয়ে শাখা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম সৈকত
বলেন, আমরা কোন সহিংসতা চালাতে ক্যাম্পাসে আসিনি। একটি হত্যার বিচার
চাইতে এসেছিলাম। কিন্তু সেখানেও ছাত্রলীগ বাঁধা দিয়েছে। তিনি বলেন, চাইলে
পাল্টা হামলা চালাতে পারতাম; কিন্তু আমরা সহাবস্থান চাই, তাই পাল্টা
হামলা চালাইনি। এবিষয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন,
গতকাল রাতে আমার ছাত্রদলের সাথে কথা হয়েছিল। আমি বলেছি, যে কোন
অনাকাক্সিখত ঘটনা এড়িয়ে চলতে এবং কোন অছাত্র যাতে ক্যাম্পাসে না আসে।
কারণ অছাত্রদের দায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নেবে না।
উল্লেখ্য, এক এগারোর পর থেকেই শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে
অবস্থান করতে পারছেন না।
এদিকে, আবরার হত্যার সুুষ্ঠু বিচার দাবিতে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল করেছ
বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষাথীরা। এতে প্রগতিশীল বিভিন্ন সংগঠনের
নেতাকর্মী, সাধারণ শিক্ষাির্থী ছাড়াও আওয়ামী, বিএনপি এবং বামপন্থী
কয়েকজন শিক্ষকও অংশ নিয়েছেন। এছাড়াও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের
আওয়ামী পন্থী শিক্ষকদের সংগঠন ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদ’ এক বিবৃতিতে এ
হত্যার সুষ্টু বিচারের দাবি জানিয়েছে।

বুয়েটের মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডে জড়িতদের সর্বোচ্চ
শাস্তির দাবি ও দেশ বিরোধী চুক্তির প্রতিবাদে ২য় দিনের মতো বিক্ষোভ ও
অবরোধ কর্মসূচী পালন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ
শিক্ষার্থীরা। বুধবার বেলা সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় পাঠাগার
চত্বর থেকে শিক্ষার্থীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি শহীদ
মিনার, কলা ভবন ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদ হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক
(ডেইরি গেট) সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে প্রবেশ করে। এসময় বিক্ষুদ্ধরা
মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন, সরকার বিরোধী স্লোগান ও বক্তৃতা
করেন। পরবর্তীতে বেলা ১ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরিয়াল বডি উপস্থিত
হলে শিক্ষার্থীরা জনদুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে অবরোধ প্রত্যাহার করে
নেয়। এরপরে বিক্ষোভ মিছিলটি ক্যাম্পাসের ভিতরে প্রবেশ করে নতুন কলা ভবনে
এসে শেষ হয়।

শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে ‘গো ব্যাক ইন্ডিয়া’, ‘আমার ভাই খুন
কেনো, শেখ হাসিনা জবাব চাই’, ‘দিল্লি না ঢাকা, ঢাকা-ঢাকা’,
‘পানি-বন্দর-নদীর দেশ, জবাব দেবে বাংলাদেশ’, ‘দেশ বিরোধী চূক্তি, মানি
না, মানবো না’, ‘শহীদ আবরার দিচ্ছে ডাক, ভারতীয় আগ্রাসন নিপাত যাক’
ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকে।


©2014 - 2019. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com