মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:৫৫ পূর্বাহ্ন

হরিপুর উপজেলায় ক্ষতিগ্রস্ত আওয়ামীলীগ কার্যালয় পরিদর্শন

হরিপুর উপজেলায় ক্ষতিগ্রস্ত আওয়ামীলীগ কার্যালয় পরিদর্শন

নিজস্ব প্রতিবেদক:  ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে গত ৯-১০-২০১৯ ইং রোজ বুধবার বর্ধিত সভা চলাকালীন সময় উপজেলা আওয়ামীলীগ ও পরে ভাতুরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীরা হামলা ও ভাংচুর করে , সেই প্রেক্ষাপটে ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামীলীগ কে সরেজমিনে ঘটনাস্হল পরিদর্শন করার আহবান জানান,হরিপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও হরিপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মোঃ জিয়াউল হাসান মুকুল ও ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বাবু নগেন কুমার পাল, প্রকৃত ঘটনার তথ্য উৎঘাটন করে সাংগঠিক ও আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার , প্রেক্ষিতে ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ ঘটনা স্থল পরিদর্শনে আসেন।

 


ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ, প্রথমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল করিম মহোদয়কে তাদের আগমনের বিষয়টি অবহিত করেন, যেহেতু ইতি পূর্বে হরিপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে দলীয় কার্যক্রম ও প্রবেশাধিকারে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে ১৪৪ ধারা বলবৎ আছে তাই ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামীলীগ এর নেতৃবৃন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়ের নিকট বিধিমোতাবেক প্রবেশের অনুমিত নিয়ে পাঁচ সদস্যের জেলা নেতৃবৃন্দ কার্যালয়ের ক্ষয়ক্ষতি ঘুরে ঘুরে দেখেন, ক্ষতিগ্রস্ত দরজা, জানালা, পুড়ে যাওয়া আসবাবপত্র, মোটর সাইকেল, ও চেয়ার সহ অন্যান্য উপকরণ।

 

 

 

তারপরে অফিসের ভিতরে ঢুকেই দেখেন ব্যাতিক্রম চিত্র, অফিসের আলমিরা চেয়ার টেবিল, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙ্গচুর ও ছিন্ন ভিন্ন অবস্থা পরে থাকতে দেখেন। পরিদর্শন শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য প্রদান করেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাদেক কুরাইশি তিনি বলেন,অত্যন্ত দুঃখ জনক ও বেদনা দায়ক মন নিয়ে বলছি যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের শাস্তি পেতেই হবে এবং সাংবাদিকদের সঠিক তথ্য জনসাধারণের নিকট উপস্থাপনের আহ্বান জানাই।

 

 

কিছু কিছু পত্রিকায় বিকৃতি করে সংবাদ উপস্থাপন করা হয়েছে।এত বড় ঘটনা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাংচুর হলো অফিস ভাংচুর হলো, নেতা কর্মীদের অবরোধ করে হামলা করা হলো। কিছু পত্রিকা সংবাদ পরিবেশন করেছে, দুই গ্রুপের মধ্যে মারপিটের উল্লেখ করে অথচ একদল সন্ত্রাসী মাথায়- হাতে লাল কাপড় ও হেলমেট পরে অফিসে হামলা করেছে, হাসুয়া রামদা,রড দিয়ে তান্ডব চালিয়েছে । জাতীরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাংচুর করেছে এই সংবাদ একটা মিডিয়ায়ও আসলো না।

 

 

 

আমার দলের নেতা কর্মীদের জীবন নাশে হুমকি সেই মহুর্তে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয় এসে তাদেরকে উদ্ধার করে। তিনি না আসলে হয়তো আলাদা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতো।অথচ নিউজ প্রকাশ হলো ওল্টো এটা দুঃখজনক।আমি আপনাদের নিকট নিরপেক্ষতা বজায় রেখে সংবাদ পরিবেশন করার আহ্বান জানাই । এরপর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি ঘটনার বিশদ বিবরণ তুলে ধরে বলেন, গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নৌকা মার্কা নিয়ে দলীয় প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেয় , অপর দিকে নৌকা মার্কার বিপক্ষে কিছু নেতা কর্মী ঘোড়া মার্কা প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারনায় অংশ নেয় ।

 

 

 

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী জয় লাভ করার পর, হরিপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্য্যকারী পরিষদের সভা ডেকে নির্বাচনে যারা দলীয় শৃংখলা ভঙ্গ করে দলের মনোনীত প্রার্থীর বিপক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলীয় শৃংখলা ভঙ্গকারীদের নির্ণয়ের জন্য কার্য্যকারী কমিটির সভায় চার সদস্যের তদন্ত টিম গঠন করা হয়। এবং তদন্ত টিমকে তিন সপ্তাহের মধ্যে উপজেলা কমিটি বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বলা হয়।

 

 

 

তদন্ত টিম তাদের প্রতিবেদন হরিপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ বরাবরে যথাসময়ে তদন্ত রিপোর্ট দাখিল করে,উক্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর আমরা হরিপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সভায় দলীয় শৃংখলা ভঙ্গকারীদের দলীয় পদ থেকে অব্যবাহতি দিয়ে জেলায় ও কেন্দ্রে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সুপারিশ করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করি। আমরা গঠনতন্ত্র মোতাবেক জেলা আওয়ামীলীগ ও কেন্দ্রে তাদের তালিকা পাঠিয়ে দিয়েছি।

 

 

 

আমরা গত ৯-১০-২০১৯ ইং তারিখে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভা ডেকে ছিলাম,সেই সভায় দলীয় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি কারীরা সঙ্গবদ্ধ হয়ে দলীয় কার্যালয়ে হামলা করে। এতে করে আওয়ামীলীগ সদস্য,মোঃএনামুলমেম্বার,মোঃজহুরুল,তাতীলীগের মোঃ সেলিম, মোঃ সাহিরুল, মোঃ মহিরুল গুরুতর আহত হয়,।বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত নেতা কর্মীদের দুটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়ার পর অফিসের দরজা জানালায় অগ্নি সংযোগ করে।অন্যান্য মালামাল সহ বঙ্গবন্ধু ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙ্গচুর করে।তিনি হরিপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষথেকে জেলানেতৃবৃন্দের নিকট সাংগঠনিক শাস্তি ও আনইগত ভাবে সহযোগীতা চেয়ে তার বক্তব্যশেষ করেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

©2014 - 2019. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com