মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ০৯:৪২ অপরাহ্ন

রাজশাহীর কীর্তিমান দুই সাংবাদিককে নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে কুচক্রী মহল

রাজশাহীর কীর্তিমান দুই সাংবাদিককে নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে কুচক্রী মহল

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীতে প্রতিভাবান কীর্তিমান দুই সাংবাদিক কাজী শাহেদ ও রফিকুল ইসলামকে নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার ও প্রপাগান্ডায় মেতে উঠেছে একটি কুচক্রী মহল। প্রথিতযশা এই দুই সাংবাদিক কাজী শাহেদ রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি এবং বাংলাদেশ প্রতিদিন সহ নিউজ 24 এর রাজশাহী ব্যুরো প্রধান অপর রফিকুল ইসলাম দেশের প্রথম শ্রেণীর জাতীয় সংবাদপত্র দৈনিক কালের কন্ঠের রাজশাহী ব্যুরো প্রধান।

সম্প্রতি দেখা গেছে বেশ কিছুদিন যাবত রাজশাহী শহরের রাজনৈতিক অঙ্গনের একটি কুচক্রী মহল এই দুই সাংবাদিককে নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচারের মাধ্যমে ফেসবুকে তাদের ব্যক্তিগত চরিত্র হননে মেতে উঠেছে। এই দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার ও প্রপাগান্ডায় ফুঁসে উঠেছে রাজশাহীর সচেতন মহল।

রাজশাহীর সচেতন মহল মনে করছে এটা অবাধ নিরপেক্ষ এবং গণতান্ত্রিক সাংবাদিকতার উপরে আঘাত এবং নিজেদের সুবিধা আদায়ে ব্যর্থ হয়ে তারা প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে এমন নোংরা খেলায় মেতে উঠেছে। অবিলম্বে এটি প্রতিহত করা উচিত।

রাজশাহীর সচেতন মহল মনে করেন এই দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার করে তাদের লেখনি এবং কলম বন্ধ করা যাবে না।

কাজী শাহেদ রাজশাহীর স্থানীয় দৈনিক সোনার দেশ পরবর্তীতে জাতীয় দৈনিক সমকাল দিয়ে তার সাংবাদিকতার জীবন শুরু করেন এবং সততা ও নিষ্ঠার সাথে তিনি রাজশাহীতে সাংবাদিক সহ সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয় একজন ব্যক্তিত্ব। বর্তমানে তিনি রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও বাংলাদেশ প্রতিদিন সহ নিউজ চ্যানেল24 এর রাজশাহী ব্যুরো প্রধান।

অপর সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম দৈনিক সানশাইন দিয়ে তার সাংবাদিকতার জীবন শুরু করেন বর্তমানে তিনি রাজশাহীর জনপ্রিয় অনলাইন সিল্কসিটি নিউজ এর সম্পাদক এবং দৈনিক কালের কন্ঠের রাজশাহী ব্যুরো প্রধান। তিনি রাজশাহী সহ সারাদেশে একজন জনপ্রিয় সাহসী সাংবাদকর্মী হিসেবে পরিচিত।

কঠোর পরিশ্রম আর মেধা দিয়ে দুই দশক যাবত এই দুই সাংবাদিক তাদের ক্যারিয়ার ইমেজ ধরে রেখেছেন। অথচ এই দুই সাংবাদিককে নিয়ে এমন মিথ্যা প্রোপাগান্ডায় প্রতিবাদ আর নিন্দার ঝড় বইছে সর্বত্র। এই নিয়ে রাজশাহী শহরে সচেতন নাগরিকদের মধ্যে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ সঞ্চার হয়েছে।

সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এদিকে নজর দেবেন বলে আশা করা যায়।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

©2014 - 2019. RajshahiNews24.Com . All rights reserved.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com