০৭ অক্টোবর ২০২২, শুক্রবার, ৬:২২:০০ অপরাহ্ন
ক্লাসরুমে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষককে হেনস্তা, ছাত্র বহিষ্কার
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৯-০৬-২০২২
ক্লাসরুমে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষককে হেনস্তা, ছাত্র বহিষ্কার

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আইন বিভাগের শিক্ষকের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণের ঘটনায় একই বিভাগের আশিক উল্লাহ নামের শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বুধবার বিকেল ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।


বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী মো. আশিক উল্লাহ দীর্ঘদিন ধরে একাধিকবার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সাথে অশোভন আচরণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাভাবিক পরিবেশের বিঘ্ন ঘটাচ্ছে। বিভিন্ন সময়ে সে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের হত্যার হুমকি দিয়েছে।


বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, বুধবার আইন বিভাগের ক্লাসরুমে শিক্ষিকা অধ্যাপক ড. বেগম আসমা সিদ্দীকাকে হেনস্তা করার পরিপ্রেক্ষিতে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষার্থে তাকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শৃঙ্খলা কমিটি ও সিন্ডিকেটের রিপোর্ট সাপেক্ষে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করার নির্দেশ প্রদান করা হলো।



বিভাগ সূত্রে জানা যায়, বুধবার ৪র্থ বর্ষের ক্লাস চলাকালীন ইমপ্রুভমেন্টের কথা বলে প্রবেশ করেন মাস্টর্সের শিক্ষার্থী আশিক উল্লাহ। কিন্তু তার কোনো ইমপ্রুভমেন্ট ছিল না। ক্লাসের শেষের দিকে সে ওই শিক্ষিকাকে বিব্রত করার জন্য অপ্রাসঙ্গিক প্রশ্ন করতে থাকে। একপর্যায়ে তিনি ক্লাস থেকে বের হতে গেলে আশিক উল্লাহ দরজা লাগিয়ে তাকে মারার জন্য উদ্ধত হয়। পরে শিক্ষার্থীরা তাকে ক্লাস রুমে আটকে রেখে ওই শিক্ষিকাকে নিরাপদে উদ্ধার করেন।


এ ঘটনার পরে বিভাগের শিক্ষার্থীরা আশিক উল্লাহকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবিতে আন্দোলন করেন। পরবর্তীতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়। এর আগে ওই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শিবলী ইসলামের গাড়ি নিয়ে এক শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে মারধরের অভিযোগ ওঠে।

শেয়ার করুন