০৭ অক্টোবর ২০২২, শুক্রবার, ১১:৫১:২৩ পূর্বাহ্ন
কাঁটাখালিতে ড্রেন নির্মানে চাঁদা না পেয়ে ইঞ্জিনিয়রের উপরে সন্ত্রাসী হামলা
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৩-০৭-২০২২
কাঁটাখালিতে ড্রেন নির্মানে চাঁদা না পেয়ে ইঞ্জিনিয়রের উপরে সন্ত্রাসী হামলা

 রাজশাহী কাঁটাখালি শ্যামপুর ৮ নং ওয়ার্ড মোল্লাপাড়া এলাকায় সরকারি ড্রেন নির্মান কাজে চাঁদার টাকা না পেয়ে নির্মানকাজে বাধা ও নির্মানকাজের ইঞ্জিনিয়রসহ ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীদের উপরে হামলা চালিয়েছে পিটিয়ে আহত করেছে স্থানিয় সন্ত্রাসীরা।

শনিবার সকাল ১১ টার দিকে শ্যামপুর মোল্লাপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় হামলাকারিদের বিরুদ্ধে কাঁটাখালি থানায় লিখিতো অভিযোগ দিয়েছেন এমএস মনির ট্রেডার্স ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের ইঞ্জিনিয়র আসাদুজ্জামান।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সারা দেশে ৩০ টি পৌরসভায় ওয়াল্ড ব্যাংককের অর্থায়নে রাজশাহী জনস্বাস্থ্য প্রৌকশল অধিদপ্তরের টেন্ডারে কাঁটাখালি পৌরসভার দেওয়ানপাড়া থেকে শ্যামপুর বালুরর ঘাট পর্যন্ত ড্রেন নির্মান কাজ চলছে গত এক মাস থেকে। কাজ টি করছেন এমএস মনির ট্রেডার্স নামের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান।

শনিবার সকাল ১১ টার দিকে এমএস মনির ট্রেডার্স ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের ইঞ্জিনিয়র আসাদুজ্জামানের সার্বিক পরিচালনায় শ্যামপুর মোল্লাপাড়া এলাকায় ড্রেন নির্মান কাজ করছিলেন। এসময় ওই এলাকার মৃত চয়েন হাজীর ছেলে মকসেদ (৫৫) তার ছেলে কাউসার (২৮) ও নজরুল ইসলামের ছেলে আরিফ (৩৫) ড্রেন নির্মান প্রতিষ্ঠানের ইঞ্জিনিয়রের কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদার টাকা না দিলে ড্রেন নির্মান কাজ বন্ধ করতে হবে বলে দাবি করে।

এসময় তাদের চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করলে তারা এমএস মনির ট্রেডার্স ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের ইঞ্জিনিয়র আসাদুজ্জামানের উপরে হামলা চালায়। এসময় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের সাপলাইয়ার ওই এলাকার মৃত মুসলেমের ছেলে আনারুল ইসলাম প্রতিবাদ করলে তার উপরেও হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। এসময় সরকারি কাজে বাধা প্রদান ও নির্মানকাজ ভাংচুর এবং কাজ বন্ধ করে দেই মকসেদের নেতৃত্বে তার বাহীনি।

হামলাকারি মকসেদ তার ছেলে কাউসার ও আরিফের বিরুদ্ধে আসামী ছিনতাইয়ের ও পুলিশের উপরে হামলার মামলায় কাঁটাখালি থানায় তারা তিনজন এজাহারভুক্ত আসামী। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে একাধিক চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে।

সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর আয়েশা আক্তার বলেন, জনগনের কল্যাণে সরকারি ড্রেন নির্মানে কাজ করছিলেন ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের ইঞ্জিনিয়রসহ অন্যান কর্মচারী ও মিস্ত্রীরা। এসময় তাদের উপরে হামলা ও সরকারি কাজে বাধা এবং নির্মান কাজ ভাংচুর করে কাজটি ঠিক করেনি স্থানিয় সন্ত্রাসীরা। দ্রুত তাদের গ্রেপ্তার করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা উচিৎ।

এ বিষয় কাঁটাখালি থানার অফিসার ইনচার্জ সিদ্দিকুর রহমান জানান, সরকারিকাজে বাধা ও ভাংচুর, চাঁদাদাবি এবং ইঞ্জিনিয়রের উপরে হামলার ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ইঞ্জিনিয়র আসাদুজ্জামান। এ বিষয় তদন্ত করে দ্রুত আসামীদের গ্রেপ্তার করা হবে বলে জানান ওসি।

শেয়ার করুন