০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, বুধবার, ০৪:২৫:২২ পূর্বাহ্ন
মাহির ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যর্থ চেষ্টা
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৫-০৮-২০২২
মাহির ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যর্থ চেষ্টা

গত কয়েক বছর ধরেই ভালো সময় যাচ্ছে না আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির। নানা কারণে বারবার সমালোচনার মুখোমুখি হচ্ছেন। ফিল্মি ক্যারিয়ারও ভালো নয়। এ অবস্থায়ই দ্বিতীয়বার বিয়ে করেন তিনি। বিয়েবিষয়ক ঝামেলায় চলার পথ আরও মন্থর হয়ে যায়।

নতুন কোনো সিনেমার কাজও হাতে নেই। আগের অভিনীত সিনেমাগুলোই মুক্তির অপেক্ষায় আছে। এর মধ্যেই আবারও নতুন বিতর্কে জড়িয়েছেন এ নায়িকা। কিছুদিন আগে তার অভিনীত ‘আশীর্বাদ’ নামের একটি সিনেমার প্রযোজক এ নায়িকার বিরুদ্ধে অপেশাদার আচরণের অভিযোগ আনেন। পরে সেই প্রযোজকের বিরুদ্ধে অর্থ আÍসাতের অভিযোগ আনেন মাহি। এ নিয়ে সরগরম হয়ে ওঠে চিত্রপাড়া।

যদিও মাহির বিরুদ্ধে অভিযোগ এবারই প্রথম নয়। এর আগেও অনেক প্রযোজক-পরিচালক বিভিন্ন সময়ে এ নায়িকার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন। ২০১৯ সালে ‘অবতার’ সিনেমার পরিচালক মাহমুদ হাসান শিকদার মাহির বিরুদ্ধে ‘টাকা হাতিয়ে’ নেওয়াসহ নানা ধরনের অভিযোগ করেন। শুটিংয়ে মাহি ১০ জনের টিম নিয়ে যেতেন। যার খরচ বহন করতে হতো প্রযোজককে। প্রযোজক-পরিচালক মোহাম্মদ হোসেন জেমীও মাহির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন।

তার আগে ২০১৮ সালে ‘ও মাই লাভ’ সিনেমার পরিচালক আবুল কালাম আজাদ মাহির বিরুদ্ধে শিডিউল ফাঁসানোর অভিযোগ করেন পরিচালক সমিতিতে। বরাবরই নিজের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন মাহি। এসব কারণে সিনেমা থেকে অনেকটা ছিটকেও পড়েন। তাই নিজেকে আলোচনায় আনার জন্য এবার ভিন্ন পথ অবলম্বন করে এ নায়িকা। প্রযোজকের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে সেটার প্রমাণও দেন। এমনই রব উঠেছে চিত্রপাড়ায়। অনেকে বলছেন, কুরবানির ঈদের পর সিনেমার বাজার কিছুটা চাঙা হয়েছে। এ সময়টাকে কাজে লাগাতে চাইছেন মাহি। তাই বিভিন্নভাবে খবরের শিরোনাম হয়ে সামনে সবার নজরে থাকতে চাইছেন। কিন্তু এসব নাকি তার ব্যর্থ চেষ্টা-সিনেমা সংশ্লিষ্টরা এমনটাই বলছেন। কারণ তার অতীত কর্মকাণ্ড তাকে আবারও ঘুরে দাঁড়াতে সহায্য করবে বলে বিশ্বাস করেন না সিনেবোদ্ধারা।

শেয়ার করুন