২৯ নভেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ০৭:৫৯:৪৮ পূর্বাহ্ন
নারীদের সাফ জয়ে ক্রিকেটারদের উচ্ছ্বাস
  • আপডেট করা হয়েছে : ২০-০৯-২০২২
নারীদের সাফ জয়ে ক্রিকেটারদের উচ্ছ্বাস

বাংলাদেশ নারী ফুটবলে ঐতিহাসিক সাফ জয়ের উচ্ছ্বাসে সারা দেশ। মেয়েদের এই অনন্য অর্জনের জন্য তাদের শুভকামনা জানাচ্ছেন সর্বস্তরের মানুষ। বাদ যাচ্ছেন না ক্রিকেটাররাও। শুভেচ্ছা জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

শুরুটা করেছিলেন নারী ক্রিকেটাররা। ২০২৩ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূলপর্বে জায়গা করে নিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাছাইপর্ব খেলছেন টাইগ্রেসরা। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ শুরুর আগে সবাই মাঠে একত্রিত হয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাবিনাদের।

সোমবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ফেসবুক পেজে পোস্ট করা এক ভিডিওতে দেখা যায়, খেলোয়াড়দের একত্রিত করে অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি মাঝে দাঁড়িয়ে বলেন, সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের জয়ে আমরা অনেক আনন্দিত। অভিনন্দন বাংলাদেশ। মালয়েশিয়ায় চার বছর আগে মেয়েদের হাত ধরে এসেছিল প্রথম এশিয়া কাপ জয়ের শিরোপা। এবারও মেয়েদের হাত ধরেই ফুটবলে এলো দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট। সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে তাই ম্যাচশেষে জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের এমন অভিবাদন!

এ ছাড়া তামিম, মুশফিক ও সাকিবরাও অভিনন্দন জানিয়েছেন। সমাজের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে যারা সম্মান এনে দিয়েছে লাল-সবুজের বাংলাদেশকে, তাদের জানালেন হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা।

বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ফেসবুকে লিখেছেন— ‘সাফ ২০২২ চ্যাম্পিয়নশিপ জেতার জন্য বাংলাদেশ জাতীয় নারী দলকে অভিনন্দন! আপনাদের নিখুঁত দৃঢ় সংকল্প, চেতনা এবং শক্তি সবার হৃদয় জয় করেছে এবং অবশ্যই প্রত্যেককে অনুপ্রাণিত করবে, বিশেষ করে নারীদের একটি উন্নত বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্নের পেছনে ছুটতে।’

ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল লিখেছেন— ‘অভিনন্দন। নিঃসন্দেহে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনে অন্যতম সেরা অর্জন।’ এ ছাড়া মুশফিকুর রহিম লিখেছেন— ‘আলহামদুলিল্লাহ, মাশাল্লাহ! সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জেতায় আমাদের প্রিয় বোনদের শুভেচ্ছা। তোমাদের সবাইকে নিয়ে অনেক গর্ব হচ্ছে। খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফদের স্যালুট।’

এ ছাড়া মাহমুদউল্লাহ, সৌম্য ও মেহেদী হাসান মিরাজও নারী ফুটবলারদের অভিনন্দন জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত ২০০৩ সালে ছেলেদের সাফ জয়ই ছিল বাংলাদেশের ফুটবলের সর্বোচ্চ সাফল্য। এবার সেখানে যুক্ত হলো মেয়েদের নামও। ছেলেরা ঘোচাতে পারেনি ফুটবলে দীর্ঘ দুই দশকের শিরোপা খরা। মেয়েরা তা করে দেখাল।

শেয়ার করুন