৬ অগাস্ট ২০২২, শুক্রবার, ০৬:৩৯:৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পরীমণির সন্তানের ছবি ও নাম প্রকাশ প্রেমের টানে ছুটে এলেন অস্ট্রিয়ান প্রকৌশলী গরু পাচার মামলায় পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল গ্রেপ্তার আরব নারীদের নিয়ে মানহানিকর প্রতিবেদন, দ্য ইকোনোমিস্টের বিরুদ্ধে মামলা সেনানিবাসে তৃতীয় জানাজা শেষে লে. কর্নেল ইসমাইলকে বনানীতে দাফন সুইস ব্যাংকের তথ্য চাওয়া নিয়ে রাষ্ট্রদূত মিথ্যা বলেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্যক্তিগত সফরে শুক্রবার টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জ্বালানি তেলের দাম যুক্তরাষ্ট্রে পাঁচ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন বেটউইনারের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করলেন সাকিব রাবির কেন্দ্রীয় মন্দির সভাপতির বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণের অভিযোগ
পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ে উত্তর কোরিয়াকে ‘সরাসরি হুমকি’ দিল যুক্তরাষ্ট্র
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৭-০৬-২০২২
পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ে উত্তর কোরিয়াকে ‘সরাসরি হুমকি’ দিল যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্রের ডেপুটি সেক্রেটারি অব স্টেট ওয়েন্ডি শেরম্যান মঙ্গলবার বলেছেন, যদি উত্তর কোরিয়া নতুন করে কোনো পারমাণবিক অস্ত্রের পরিক্ষা চালায় তাহলে যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ কোরিয়া ও পুরো বিশ্ব থেকে শক্তিশালী প্রতিক্রিয়া আসবে। 

দক্ষিণ কোরিয়ার ডেপুটি পররাষ্ট্রমন্ত্রী চো হুইয়োন-ডংয়ের সঙ্গে বৈঠক শেষে এমন হুমকি দেন যুক্তরাষ্ট্রের ডেপুটি সেক্রেটারি অব স্টেট।

তিনি বলেন, যে কোনো ধরনের পারমাণবিক পরিক্ষা জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের রেজুলেশনের লঙ্ঘন হবে। এরকম পরিক্ষা করা হলে কঠোর ও শক্তিশালী প্রতিক্রিয়া আসবে। 

ওয়েন্ডি শেরম্যান আরও বলেছেন, পুরো বিশ্ব কঠিন ও পরিস্কারভাবে জবাব দেবে। আমরা এর জন্য প্রস্তুত আছি। 

এদিকে আশঙ্কা করা হচ্ছে উত্তর কোরিয়া শিগগিরই একটি নিউক্লিয়ার অস্ত্রের পরিক্ষা চালাবে। সর্বশেষ ২০১৭ সালে এমন পরিক্ষা চালিয়েছিল তারা। 

এ বছর অসংখ্য মিসাইল পরিক্ষা চালিয়েছে দেশটি।

সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার উত্তর উপকূলে আটটি সারফেস টু সারফেস মিসাইল ছোঁড়ে দক্ষিণ কোরিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র । উত্তর কোরিয়া বেশ কয়েকটি স্বল্প পাল্লার ব্যালাস্টিক মিসাইল ছোঁড়ার পর যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া এ পদক্ষেপ নেয়। 

আন্তর্জাতিক অ্যাটোমিক এনার্জি এজেন্সি জানিয়েছে, দক্ষিণ  কোরিয়ার নিউক্লিয়ার পরিক্ষা কেন্দ্রে ‘এডিট’ চালু করেছে এমন ইঙ্গিত পেয়েছে তারা। এই এডিট থেকে  পারমাণবিক অস্ত্রের পরিক্ষা করা হয়। 

২০১৮ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার তৎকালীন প্রেসিডেন্ট মুন জা-ইনের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার কিম জং উনের বৈঠকের পর কেন্দ্রটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। 

এদিকে ওয়েন্ডি শেরম্যান তার দক্ষিণ কোরিয়া সফরে জানিয়েছেন, তারা আলোচনার জন্য প্রস্তুত আছেন। তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার প্রতি আহ্বান জানায় তারা যেন উস্কানিমূলক কর্মকান্ড বাদ দিয়ে কূটনৈতিকভাবে সমস্যাগুলো নিয়ে আলোচনা করেন। 

২০১৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং কিম জন উনের মধ্যে হওয়া বৈঠক ভেস্তে গেলে দুই দেশের মধ্যে পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ে আলোচনা বন্ধ হয়ে যায়। 

শেয়ার করুন