০৯ অগাস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১১:৩৯:৩৫ অপরাহ্ন
সিলেটে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে ফায়ারকর্মীদের ছুটি বাতিল
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৮-০৬-২০২২
সিলেটে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে ফায়ারকর্মীদের ছুটি বাতিল

সিলেটে স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় মানবিক সাহায্যে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স। শুক্রবার (১৭ জুন) সকাল থেকে সিলেট বিভাগীয় অফিস সাহায্য কার্যক্রম জোরদার করেছে। কেন্দ্রীয়ভাবে ঢাকায় খোলা হয়েছে বন্যায় উদ্ধার কাজের মনিটরিং সেল। জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় সিলেটের সব স্টেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করে স্ট্যান্ডবাই ডিউটিতে মোতায়েন রাখা হয়েছে।


সিলেটের এই ভয়াবহ বন্যায় মানবিক বিপর্যয় ঠেকাতে এরই মধ্যে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী। তাদের নেতৃত্বে কাজ করছেন ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরাও। গতকাল শুক্রবার থেকে বিপর্যয়ের মুখে থাকা সিলেট সদরের খাদ্য গুদামে ঢুকে পড়া পানি নিয়মিতভাবে পাম্পের মাধ্যমে সরানোর কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট।



এছাড়া বিপর্যয়ের মুখে থাকা কুমারগাঁও বিদ্যুৎ কেন্দ্রেও নিয়োজিত করা হয়েছে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট। সেখানেও তারা ভেতরে ঢুকে পড়া পানি নিয়মিতভাবে সরানোর মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক ও চলমান রাখার কাজে সহায়তা করছে।


সিলেটে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে ফায়ারকর্মীদের ছুটি বাতিল


ফায়ার সার্ভিস অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের নির্দেশনায় গতকাল (শুক্রবার) রাতেই জরুরি ভিত্তিতে অধিদপ্তর থেকে সিলেটে জেমিনি বোট পাঠানো হয়েছে। জেমিনি বোটের সাহায্যে শনিবার (১৮ জুন) সকাল থেকে বিভিন্ন স্থানে আটকে পড়া মানুষকে উদ্ধার করে আশ্রয়কেন্দ্রে নেওয়ার কাজ শুরু করেছে ফায়ার সার্ভিস। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে খাদ্য সাহায্য পৌঁছে দিতেও কাজ করছেন ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।


মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন এ বিষয়ে বলেন, ফায়ার সার্ভিস হচ্ছে মানুষের দুঃসময়ের বন্ধু। সিলেটের এই মানবিক বিপর্যয়ে আমাদের সদস্যরা ঘরে বসে থাকতে পারেন না। আমরা রাত-দিন ২৪ ঘণ্টা সিলেটের বিপদগ্রস্ত মানুষের পাশে আছি। প্রাকৃতিক দুর্যোগের এই সময় ফায়ার সার্ভিস সদস্যদের সব কার্যক্রম নিয়মিত ও নিবিড়ভাবে আমি নিজেও পর্যবেক্ষণ করছি। প্রয়োজনীয় সব সাহায্য নিয়ে এই দুর্যোগে সিলেটবাসীর পাশে থাকবে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

শেয়ার করুন