৩০ জানুয়ারী ২০২৩, সোমবার, ০৩:০৩:০০ অপরাহ্ন
ইশরাকের জনসংযোগে হামলা, গাড়ি-ভাঙচুর
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৪-৬-২০২২
ইশরাকের জনসংযোগে হামলা, গাড়ি-ভাঙচুর

১০ ডিসেম্বর ঢাকায় বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ ঘিরে রাজধানীতে জনসংযোগ করার সময় হামলার শিকার হয়েছেন বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেন।


রোববার (৪ ডিসেম্বর) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এসময় ইশরাকের গাড়িবহরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে পুলিশ।


জানা যায়, বিএনপির আগামী ১০ ডিসেম্বর গণসমাবেশ সামনে রেখে রাজধানীতে জনসংযোগ করছিলেন ইশরাক। সমাবেশের সমর্থনে লিফলেট বিতরণ করছিলেন তিনি। এসময় বংশাল হয়ে ইসলামপুর বাবুবাজার অতিক্রম করার পর তার গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটে।


এর আগে দুপুরে রাজধানীর মতিঝিল, গোপীবাগ এবং ওয়ারী এলাকায় গণসংযোগ করেন ইশরাক হোসেন। এসময় ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশ সামনে রেখে বাসায় বাসায় বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশি হয়রানির অভিযোগ এনে ওয়ারী থানায় গিয়ে নেতাকর্মীদের হয়রানি না করতে অনুরোধ জানান তিনি।


ইশরাকের জনসংযোগে হামলা, গাড়ি-ভাঙচুর


ইশরাকের জনসংযোগ গোপীবাগ এলাকা থেকে ওয়ারী, ইত্তেফাক মোড় হয়ে বংশাল, জয়কালী মন্দির, টিপু সুলতান রোড, রথখোলাসহ পুরান ঢাকার বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে।


পরে বংশাল থানায় গিয়েও নেতাকর্মীদের হয়রানির বিষয়ে অবহিত করেন ইশরাক। এরপর বংশাল হয়ে মিছিলযোগে ইসলামপুর বাবুবাজারের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন।


এতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল এবং সেচ্ছাসেবক দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। ইশরাক হোসেন বলেন, পুলিশি হয়রানি, হামলা-মামলা বা গ্রেফতার করে সমাবেশ ঠেকানো যাবে না।

শেয়ার করুন