০৫ ডিসেম্বর ২০২২, সোমবার, ০৪:৩২:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নওগাঁ সদর হাসপাতালের সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ
  • আপডেট করা হয়েছে : ১০-০৯-২০২২
নওগাঁ সদর হাসপাতালের সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ

নওগাঁ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে পেশাগত দায়িত্ব পালনে বাঁধা প্রদান করে, মুভি বাংলা টিভির নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিকে মারধর করে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। 


গতকাল ৯ সেপ্টম্বর শুক্রবার বিকেল ৫ ঘটিকায় সময় নওগাঁ সদর হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। এবিষয়ে গতকাল সন্ধায় নওগাঁ সদর মডেল থানায় সাংবাদিক অন্তর আহমেদ বাদী হয়ে অভিযোগ করা হয়েছে। 

 

সাংবাদিক অন্তর আহমেদ বলেন, দৈনিক আজকের প্রভাত ও দেশ আজকাল প্রত্রিকার নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি মোঃ সুজন রানা হঠাৎ বুকে ব্যথা ও বোমি  শুরু করলে তাঁকে চিকিৎসার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালের ইমারজেন্সি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার ডাক্তার লুমা তার রুমে থাকা সব রোগীদের বের করে দিয়ে ঔষধ কোম্পানির রিপেজেনটিভ নবেল হোসেনের উপহার পর্দা, রুমে লাগানোর নিয়ে তার সাথে আলাপ চারিতা করতে থাকে।

 

এসময় কর্তব্যরত ডাক্তার লুমাকে রোগী দেখার জন্য অনুরোধ করলে তিনি সাংবাদিকের উপর চওড়া হোন  এবং রাগান্বিত কন্ঠে বলেন, ওষুধ কোম্পানির লোক যে কোনো মুহূর্তে হাসপাতালে আসবে এবং ডাক্তার ভিজিট করতে পারবে তাদের কোন নিদিষ্ট সময়ের প্রয়োজন নেই। 


এই বিষয়ে আমাদের কোনো নির্দেশনা নাই। আপনার এতে সমস্যা কি। ওই চিকিৎসকের এমন ব্যবহারের ভিডিও ধারন করতে লাগলে তিনি আরো চওড়া হোন  একপর্যায়ে ডাক্তারের নির্দেশে ঔষধ কোম্পানির রিপেজেনটিভ নবেল হোসেন ও হাসপাতালের ট্রলি ম্যান জাহিদ এসে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ভিডিও ধারণ করা মোবাইল কেড়ে নেয় এবং  মারধর করে বের করে দেয়। 

 

এবিষয়ে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক জাহিদ হাসান চৌধুরী সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আজ ছুটির দিন আমি বাসায় আছি এই বিষয়ে আমি জেনেছি আগামীকাল আসেন বিষয়টি দেখব।


নওগাঁ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. নজরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন