০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, মঙ্গলবার, ০২:৩৮:৫৭ অপরাহ্ন
শেখ রাসেল দিবসে আজিজুল আলম বেন্টুর বিশেষ মেহমানদারী
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৯-১০-২০২২
শেখ রাসেল দিবসে আজিজুল আলম বেন্টুর বিশেষ মেহমানদারী

প্রায় এক যুগেরও বেশি সময় ধরে সাধ্যমতো সমাজের ছিন্নমূল অসহায় মানুষদের জন্য কাজ করে আসছেন রাজশাহীর মানবতার ফেরিওয়ালা খ্যাত মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বিশিষ্ট সমাজসেবক আজিজুল আলম বেন্টু।


শুধু তাই নয়, জাতীয় ও আঞ্চলিক বিশেষ দিনগুলোতে সমাজের এসকল অসহায় ও দুঃস্থদের জন্য বিশেষভাবে আয়োজন করেন তিনি।


গত বছরের ২৮ সেপ্টেম্বর রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ে নাম লেখান আজিজুল আলম বেন্টু। নগরীর কল্পনা সিনেমা হল মোড়ে লবঙ্গ চাইনিজ অ্যান্ড ফাস্ট ফুড নামে একটি রেস্টুরেন্ট চালু করা হয়। কিন্তু সেই রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ের মধ্যেও মানবিকতার অনন্য এক উদাহরণ হয়ে উঠেছেন রাজশাহীর এই মানবতার ফেরিওয়ালা।


লবঙ্গের উদ্বোধনের পর থেকেই রেস্টুরেন্টটির পক্ষ থেকে দৈনিক ২ শতাধিক অসহায় মানুষকে এক বেলা পেট পুরে খাওয়ান আজিজুল আলম বেন্টু। আর তারই ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে সমাজের এসকল অসহায় দুঃস্থ মেহমানদের জন্য ছিলো বিশেষ আয়োজন।


রিকশাচালক থেকে দিনমজুর, শিশু থেকে বৃদ্ধ। প্রতিদিনের মতোই এই দিনেও রাত ১১টার দিকেই সমাজের প্রায় ২ শতাধিক অসহায়-দুঃস্থ মানুষ সারিবদ্ধভাবে চলে আসেন লবঙ্গ রেস্তোরায়। কিছুক্ষণের মধ্যেই মাঝ বয়সী কয়েকজন যুবক তাদের সারিবদ্ধভাবে বসিয়ে একে একে খাবার পরিবেশন করেন।


বিশেষ এই দিনটিতে খাবারেও ছিলো বিশেষ আয়োজন। যার মধ্যে ছিলো ভাতের সাথে মুরগির মাংস, ডাউল, সবজি, সালাদ।


এমন আয়োজনে খুশি এসকল অসহায় মানুষ। সমাজের অন্যান্য বিত্তবানরাও যেন এমন উদ্যোগ গ্রহণ করে সেই প্রত্যাশা তাদের।


আর নিজের আত্মতৃপ্তির জায়গা থেকেই এমন উদ্যোগ নিয়েছেন লবঙ্গের কর্ণধার, রাজশাহী নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টু।


শেখ রাসেল দিবস সম্পর্কে তিনি বলেন, বাংলাদেশের সব শিশুর মধ্যে আজও আমরা শেখ রাসেলকে খুঁজে ফিরি। আমাদের মাঝে আজ শেখ রাসেল না থাকলেও তার পবিত্র স্মৃতিগুলো রয়েছে। আর দেশের শিশুদেরকে আমরা যেন শেখ রাসেলের চেতনায় গড়ে তুলতে পারি সেই লক্ষ্যেই তরুণ প্রজন্মকে কাজ করে যেতে হবে।

শেয়ার করুন