৬ অগাস্ট ২০২২, শুক্রবার, ০৫:৫২:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পরীমণির সন্তানের ছবি ও নাম প্রকাশ প্রেমের টানে ছুটে এলেন অস্ট্রিয়ান প্রকৌশলী গরু পাচার মামলায় পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল গ্রেপ্তার আরব নারীদের নিয়ে মানহানিকর প্রতিবেদন, দ্য ইকোনোমিস্টের বিরুদ্ধে মামলা সেনানিবাসে তৃতীয় জানাজা শেষে লে. কর্নেল ইসমাইলকে বনানীতে দাফন সুইস ব্যাংকের তথ্য চাওয়া নিয়ে রাষ্ট্রদূত মিথ্যা বলেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্যক্তিগত সফরে শুক্রবার টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জ্বালানি তেলের দাম যুক্তরাষ্ট্রে পাঁচ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন বেটউইনারের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করলেন সাকিব রাবির কেন্দ্রীয় মন্দির সভাপতির বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণের অভিযোগ
দুদকের মামলার বৈধতা নিয়ে তারেক-জোবাইদার রিট শুনানি মুলতবি
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৯-০৫-২০২২
দুদকের মামলার বৈধতা নিয়ে তারেক-জোবাইদার রিট শুনানি মুলতবি

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও হিসাব বিবরণীতে সম্পদ গোপন করার অভিযোগে করা দুদকের মামলা এবং প্রক্রিয়ার বৈধতা নিয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমানের করা পৃথক রিটের শুনানি এক সপ্তাহের জন্য মুলতবি করেছেন হাইকোর্ট।

রিট আবেদনকারীর পক্ষে আইনজীবীর সময়ের আরজির পরিপ্রেক্ষিতে  রোববার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এক সপ্তাহ সময় মঞ্জুর করেন।

১৯ বছর আগে ২০০৭ সালে পৃথক রিট করেন তারেক ও জোবাইদা। রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ওই বছরের নভেম্বরে হাইকোর্ট রুল দেন। গত ২০ এপ্রিল রুল শুনানির জন্য হাইকোর্ট ২৯ মে দিন রাখেন। এর ধারাবাহিকতায় আজ রিটগুলো কার্যতালিকায় ওঠে।

আদালতে আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলী। দুদকের পক্ষে জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খুরশীদ আলম খান এবং রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন।

পরে খুরশীদ আলম বলেন, রিট আবেদনকারী আইনজীবী এক সপ্তাহ সময়ের আরজি জানান। পলাতক তারেক রহমানের পক্ষে সময়ের আরজি জানানো যায় কিনা, শুনানিতে বলেছি। রুল শুনানির সময় এর আইনগত দিক দেখবেন বলেছেন আদালত। এক সপ্তাহ সময় মঞ্জুর করেছেন আদালত। রুলের ওপর আগামী রোববার শুনানি হবে।’

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও হিসাব বিবরণীতে সম্পদ গোপন করার অভিযোগে ২০০৭ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দুদক কাফরুল থানায় ওই মামলা করে।

এ মামলায় তার স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমান ও শাশুড়ি সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানুকেও আসামি করা হয়। মামলায় ৪ কোটি ৮১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৬১ টাকার জ্ঞাত আয়ের উৎসবহিভূর্ত স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদ অর্জনের অভিযোগ করা হয়। একই বছর তারেক রহমান ও তার স্ত্রী পৃথক রিট করেন। এতে জরুরি আইন ও মামলার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা হয়।
 

শেয়ার করুন