৬ অগাস্ট ২০২২, শুক্রবার, ০৪:৫৪:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পরীমণির সন্তানের ছবি ও নাম প্রকাশ প্রেমের টানে ছুটে এলেন অস্ট্রিয়ান প্রকৌশলী গরু পাচার মামলায় পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল গ্রেপ্তার আরব নারীদের নিয়ে মানহানিকর প্রতিবেদন, দ্য ইকোনোমিস্টের বিরুদ্ধে মামলা সেনানিবাসে তৃতীয় জানাজা শেষে লে. কর্নেল ইসমাইলকে বনানীতে দাফন সুইস ব্যাংকের তথ্য চাওয়া নিয়ে রাষ্ট্রদূত মিথ্যা বলেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্যক্তিগত সফরে শুক্রবার টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জ্বালানি তেলের দাম যুক্তরাষ্ট্রে পাঁচ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন বেটউইনারের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করলেন সাকিব রাবির কেন্দ্রীয় মন্দির সভাপতির বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণের অভিযোগ
ভোট স্থগিত করে আ.লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে মামলার নির্দেশ দিল ইসি
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৫-০৬-২০২২
ভোট স্থগিত করে আ.লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে মামলার নির্দেশ দিল ইসি

আগামী ১৫ জুন অনুষ্ঠিতব্য চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার চাম্বল ইউনিয়ন পরিষদের ভোট স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। একইসঙ্গে চেয়ারম্যান পদে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মুজিবুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলা করার নির্দেশ দিয়েছে কমিশন।

রোববার কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ইসির যুগ্ম সচিব ও জনসংযোগ পরিচালক এসএম আসাদুজ্জামান এ তথ্য জানিয়েছেন।

ইসির ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ১৫ জুন দেশের ১৩৫টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণের কথা রয়েছে। এর মধ্যে চাম্বল ইউনিয়ন একটি। এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী মুজিবুল হক চৌধুরীর একটি বক্তব্যের ভিডিও সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। 

ভিডিওতে দেখা যায়, মুজিবুল হক আঞ্চলিক ভাষায় ভোটারদের বলছেন- ‘ইভিএমে ভোট না হলে রাতেই সব ভোট নিয়ে নিতেন তিনি। আইডি যাচাই করে ইভিএমে ভোট দিতে হয়, কষ্ট করে কার্ড নিয়ে আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে ভোট দিতে হয়। ছাপ দিতে না জানলে সেখানে তিনি ছাপ দেওয়ার জন্যে মানুষ রাখবেন।’

বিষয়টি নজরে এলে গত ৩১ মে এক বিজ্ঞপ্তিতে ইসি বলে, ‘ইভিএমে ভোট সম্পর্কে চেয়ারম্যান প্রার্থী মুজিবুল হক চৌধুরীর ফেসবুকে অপপ্রচারের বিষয়ে যাচাইপূর্বক প্রকৃত ঘটনা, দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিবেদন প্রেরণের জন্য জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার, চট্টগ্রামকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।’

তার পরিপ্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার ইসির কাছে সেই তদন্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়। প্রতিবেদন পেয়ে কমিশন ওই ইউপির ভোট স্থগিতের পাশাপাশি প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনে মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

শেয়ার করুন