০৫ ডিসেম্বর ২০২২, সোমবার, ০৩:২৯:০০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুষ্টিয়া থেকে রাজশাহীতে এসে প্রতারণা, সহদর গ্রেপ্তার
  • আপডেট করা হয়েছে : ১০-০৯-২০২২
কুষ্টিয়া থেকে রাজশাহীতে এসে প্রতারণা, সহদর গ্রেপ্তার

রাজশাহী নগরীতে প্রতারনার অভিযোগে সদরককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থনা পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। শুক্রবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানান আরএমপি সদর দপ্তর।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, গত ২০২১ সালে ২৫ শে ডিসেম্বর দুপুরে কাশিয়াডাঙ্গা থানা হড়গ্রাম পশ্চিম শেখপাড়া গ্রামের শাহাবুল ইসলামের (৪৮) বাড়ির দরজার সামনে কুষ্টিয়া মিরপুর থানার কাতলামারী গ্রামের নাসির উদ্দিনের ২ ছেলে প্রতারক আফান আলী (৩৯) ও সোফান আলী (২৯) মৌলবী বেশ ধারে শাহাবুলের অনেক বিপদ বলে ভয় দেখায়।

তাই প্রতারকরা ঝাড়ফুক দেওয়ার কথা বলে পানিতে ঝাড়ফুক দিয়ে পানি খাওয়ায় এবং মানত হিসেবে তাহার নিকট থেকে নগদ ৪৯,৭০০ টাকা ও তাহার স্ত্রীর গলার স্বর্ণের চেইন কৌশলে নিয়ে নেয়। পরে প্রতারকরা তাহাকে চোখ বন্ধ করে রাখতে বলে কালিমা পড়তে থাকে। একপর্যায়ে তারা কৌশলে মোটরসাইকেল নিয়া সেখান থেকে পালাইয়া যায়।

ওই ঘটনার পরে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে ১ টার দিকে কাশিয়াডাঙ্গা হড়গ্রাম পশ্চিম শেখপাড়া শাহাবুল ইসলাম (৪৮) তার বাড়ি সংলগ্ন মুদি খানার দোকান ঘরে ওই ২ প্রতারক কে দেখে চিনিতে পেরে থানা পুলিশকে খবর দেই।

কাশিয়াডাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ এসএম মাসুদ পারভেজের নির্দেশে তাৎক্ষনিক কাশিয়াডাঙ্গা থানা পুলিশেরর একটি টিম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ২ প্রতারককে গ্রেপ্তার করে। এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে থানায় নিয়মিত মামলা দায়ের করে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ্দ করা হয়েছে।

কাশিয়াডাঙ্গা থানার ওসি এসএম মাসুদ পারভেজ বলেন, তারা কুষ্টিয়া থেকে রাজশাহীতে এসে নগরীর একটি হোটেলে ভাড়া থাকে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ঝাড় ফু ও কবিরাজি করে মানুষের সাথে প্রতারণা করে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। প্রতারণার অভিযোগে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শেয়ার করুন