০৯ অগাস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:১৫:২৮ অপরাহ্ন
ভোটের ফলে দ্বিতীয় হওয়ার সুযোগ নেই: রিফাত
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৫-০৬-২০২২
ভোটের ফলে দ্বিতীয় হওয়ার সুযোগ নেই: রিফাত

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে আজ সকাল ৮টায়, চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। সকালেই ভোট দিয়েছেন নির্বাচনি মাঠে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় থাকা হেভিওয়েট তিন মেয়রপ্রার্থী। 
 
সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নগরীর ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট স্কুলে ভোট দিয়েছেন নৌকার প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত। পৌনে ৯টার দিকে একই কেন্দ্রে স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সারও ভোট দেন। 

অন্যদিকে সকাল সাড়ে ৯টায় নগরীর হোচ্ছাম হায়দার উচ্চ বিদ্যালয়ে ভোট দেন সাবেক মেয়র ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু।  বিজয়ের ব্যাপারে আশাবাদী তিন মেয়রপ্রার্থীই। 

ভোট শেষে নৌকার প্রার্থী রিফাত সাংবাদিকদের বলেন, শান্তির কুমিল্লায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোট চলছে। 

নির্বাচনে তিনি বিজয়ী হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, ভোটের ফলে তিনি দ্বিতীয় হওয়ার সুযোগ নেই। তিনি বিজয়ে শতভাগ আশাবাদী।  

নির্বাচনে ভোটের পরিবেশ কেমন? এমন প্রশ্নের জবাবে রিফাত বলেন, আমি নালিশ পার্টির নেতা নই, তাই এ নিয়ে কোনো নালিশ নেই। 

ইভিএমে ভোট দিয়ে প্রতিক্রিয়ায় রিফাত বলেন, এখন পর্যন্ত চমৎকার পরিবেশ দেখছি। আমি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। আমি আশাবাদী লোক। নিরাশার ধারেকাছেও যেতে চাই না। সবাইকে বলল, আশাবাদী হোন।

এর পরই তিনি দলীয় সমর্থকদের নিয়ে কেন্দ্র পরিদর্শনে বেরিয়ে যান।

এক নজরে কুমিল্লা সিটি নির্বাচন

ভোটগ্রহণের সময়: বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা চলবে ভোটগ্রহণ।

ভোটার: ২,২৯,৯২০ জন (পুরুষ ১,১২,৮২৬; নারী ১,১৭,০৯২ এবং হিজড়া ২)।

ওয়ার্ড: ২৭টি সাধারণ, ৯টি সংরক্ষিত।

ভোটকেন্দ্রে: ১০৫টি কেন্দ্রের ৬৪০টি ভোটকক্ষে হবে ভোটগ্রহণ।

প্রার্থী: মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১০৬ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষা

প্রতি কেন্দ্রে থাকবেন ১৫-১৬ জন নিরাপত্তা সদস্য।

পুলিশ, এপিবিএন, ব্যাটালিয়ন আনসার সদস্য নিয়ে গঠিত মোবাইল ফোর্স থাকবে প্রতিটি সাধারণ ওয়ার্ডে।

প্রতি তিন ওয়ার্ডে একটি করে নয়টি স্ট্রাইকিং ফোর্স থাকবে।

রিজার্ভ ফোর্স থাকবে দুটি।

র‌্যাবের ২৭টি টিম ও বিজিবির ১২ প্লাটুন (প্রতি প্লাটুনে ২৫ জন) সদস্য নিয়োজিত থাকবেন ভোটের মাঠে।

২৭ জন নির্বাহী হাকিম এবং ৯ জন বিচারিক হাকিম থাকবেন ভোটের মাঠে।

আগের ইতিহাস

দুটি পৌরসভা নিয়ে ২০১১ সালের জুলাই মাসে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন গঠিত হওয়ার পর দুটি নির্বাচন হয়েছে।

১০ বছর আগে প্রথম নির্বাচনে নির্দলীয় প্রতীকে ভোট হলেও ২০১৭ সালে দলীয় প্রতীকে মেয়র নির্বাচন হয়।

দুই নির্বাচনেই ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে পরাজিত করে বিএনপির প্রার্থী জয়ী হন।

২০১৭ সালের ৩০ মার্চ কুমিল্লা সিটিতে সর্বশেষ ভোট হয়েছিল। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি দায়িত্ব নেওয়ার পর ১৭ মে প্রথম সভা হয়। তাদের পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হয় এ বছরের ১৬ মে।

শেয়ার করুন