০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, বুধবার, ০৩:১২:১৯ পূর্বাহ্ন
গাজীপুরে নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও র‌্যালী
  • আপডেট করা হয়েছে : ২২-১০-২০২২
গাজীপুরে নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও র‌্যালী

আইন মেনে সড়কে চলি, নিরাপদে ঘরে ফিরি” প্রতিপাদ্যর মধ্য দিয়ে ২২ অক্টোবর শনিবার জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদযাপন উপলক্ষে বর্ণাঢ্য শুভযাত্রা ও আলোচনা সভা করেছেন গাজীপুর জেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) গাজীপুর সার্কেল।

সকালে গাজীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাটি শুরু হয়ে জেলা টাউনের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় রাজবাড়ী ভাওয়াল সম্মেলন কক্ষে এসে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোছাঃ নাসরীন পারভীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিআরটিএ গাজীপুর সার্কেল এর সহকারী পরিচালক (ইঞ্জিঃ) মোঃ আবু নাঈম।

বক্তব্য রাখেন জেলা পুলিশের এএসপি (ট্রাফিক) রবিউল ইসালাম, সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী খন্দকার মোঃ শরীফুল আলম, নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) গাজীপুর জেলা শাখার সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক ডাঃ মোঃ লোকমান হোসেন, গাজীপুর জেলা আঞ্চলিক পরিবহণ কমিটির সদস্য প্রফেসর এম. এ বারী, গাজীপুর জেলা আঞ্চলিক পরিবহণ কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ মুকুল কুমার মল্লিক, গাজীপুর সড়ক পরিবহন শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি সুলতান আহামেদ সরকার প্রমুখ।

সভায় প্রধান অতিথি গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান বক্তব্যে বলেন, নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়নের জন্য জনসাধারণ, চালক, বাস মালিক ও প্রশাসনের সবাইকে সম্মিলিত ভুমিকা রাখতে হবে। চালকদের উন্নত প্রশিক্ষণ ও ট্রাফিক আইন সম্পর্কে আরো সচেতন হবে।

নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) জেলা শাখার সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যাপক ডাঃ মোঃ লোকমান হোসেন বলেন, ২৮ বছর আগে বান্দরবানে চিত্রনায়ক স্বামী ইলিয়াস কাঞ্চনের কাছে যাওয়ার পথে চট্টগ্রামের চন্দনাইশে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন স্ত্রী জাহানারা কাঞ্চন। রেখে যান অবুঝ দুটি শিশু সন্তান জয় ও ইমাকে। ইলিয়াস কাঞ্চন ওই সময় সিনেমার শুটিংয়ে বান্দরবান অবস্থান করছিলেন। স্ত্রীর অকাল মৃত্যুতে দুটি অবুঝ সন্তানকে বুকে নিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন নেমে আসেন পথে। পথ যেন হয় শান্তির, মৃত্যুর নয়, এ স্লোগান নিয়ে গড়ে তোলেন একটি সামাজিক আন্দোলন ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ (নিসচা)।

ডাঃ মোঃ লোকমান হোসেন আরো বলেন, গাজীপুর শহরে যেখানে ইচ্ছা সেখানে গাড়ী থামিয়ে যাত্রি উঠানামা করা হয়। এতে আরো যানজটের সৃষ্টি হয়।

বক্তারা বলেন, সড়ক নিরাপদ ও দুর্ঘটনা হ্রাস করতে সরকারের যেমন দায়িত্ব রয়েছে তেমনি সাধারণ মানুষকেও সচেতন হতে হবে। গাড়ি চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স ও গাড়ির ফিটনেস সঠিক থাকতে হবে। গাড়ি চালক ও পথচারীদের সঠিক ট্রাফিক আইন মেনে চলাচল করতে হবে। সড়ক দুর্ঘটনা রোধে অদক্ষ, অপ্রাপ্ত বয়স্ক চালক, সহযোগীদের দিয়ে গাড়ি চালানো বন্ধ করতে সরকারকে আরও কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান।

এসময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন বিআরটি গাজীপুর সার্কেল এর মোটরযান পরির্দশক মোটরযান পরিদর্শক মোঃ নূরুল হোসেন, সাইদুল ইসলাম সুমন, হাইওয়ে পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার অমৃত ধর, নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) গাজীপুর জেলা শাখার দুর্ঘটনা অনুসন্ধান ও গবেষণা সম্পাদক সাংবাদিক মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক), ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়া এবং অনলাইন নিউজ পোর্টালের সাংবাদিক, বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের প্রধানসহ জনপ্রতিনিধি, সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।

র‌্যালীতে গাজীপুর পরিবহন সংশ্লিষ্ট নেতারা এবং শ্রমিকরা অংশগ্রহণ করেন। সভাশেষে জেলা প্রশাসকের গেইটে রাজবাড়ি সড়কে সকলের মাঝে সড়ক দুর্ঘটনা বিষয়ক সচেতনতার জন্য লিফলেট বিতরণ করা হয়।

শেয়ার করুন