৬ অগাস্ট ২০২২, শুক্রবার, ০৫:৪৯:১২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পরীমণির সন্তানের ছবি ও নাম প্রকাশ প্রেমের টানে ছুটে এলেন অস্ট্রিয়ান প্রকৌশলী গরু পাচার মামলায় পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল গ্রেপ্তার আরব নারীদের নিয়ে মানহানিকর প্রতিবেদন, দ্য ইকোনোমিস্টের বিরুদ্ধে মামলা সেনানিবাসে তৃতীয় জানাজা শেষে লে. কর্নেল ইসমাইলকে বনানীতে দাফন সুইস ব্যাংকের তথ্য চাওয়া নিয়ে রাষ্ট্রদূত মিথ্যা বলেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্যক্তিগত সফরে শুক্রবার টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জ্বালানি তেলের দাম যুক্তরাষ্ট্রে পাঁচ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন বেটউইনারের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করলেন সাকিব রাবির কেন্দ্রীয় মন্দির সভাপতির বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণের অভিযোগ
বিদ্যালয়ের গাছ থেকে আম পাড়ায় শিক্ষার্থীকে জুতাপেটা
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৫-০৫-২০২২
বিদ্যালয়ের গাছ থেকে আম পাড়ায় শিক্ষার্থীকে জুতাপেটা

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার পালপুড় উচ্চ বিদ্যালয়ের গাছ থেকে আম পাড়ায় শিক্ষার্থীকে এক শিক্ষার্থীকে জুতাপেটা করার অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয়েল লাইব্রেরিয়ান ও পিয়নের বিরুদ্ধে। গত রোববার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনায় ভুক্তভোগী দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী সুমন আলী ও অভিযুক্ত বিদ্যালয়ের লাইব্রেরিয়ান কামারুজ্জামান টিপু ও পিয়ন খালেদ হোসেন।

ঘটনাসূত্রে জানা গেছে, রোববার সকালে বিদ্যালয়ের একটি আম গাছ থেকে আম খাওয়ার জন্য সুমন তিনটি আম পাড়লে কথা-কাটাকাটি হয় ও লাইব্রেরিয়ান ও পিয়নের সাথে। এসময় প্রধান শিক্ষক উভয়কে শান্ত করতে এগিয়ে আসলে পা পিছলে মাটিতে পড়ে যান প্রধান শিক্ষক আসাদুল আলম । এতে ক্ষিপ্ত হয়ে লাইব্রেরিয়ান টিপু নিজের পায়ের জুতা খুলে এলোপাতাড়ি মারতে থাকেন শিক্ষার্থী সুমনকে। এক পর্যায়ে লাইব্রেরিয়ান টিপুর সাথে মারধরে যোগ দেন পিয়ন খালেদ হোসেন। সেখানে শিক্ষার্থী সুমনের মা বাঁচাতে  আসলে তিনিও মারধরের শিকার হন।

এদিকে, এই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এসময় এলাকাবাসী দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানান।

ওই শিক্ষার্থীকে জুতা দিয়ে মারধরের কথা অভিযুক্তরা স্বীকার করে বলেন, তিনি ভেবেছিলেন ওই শিক্ষার্থী প্রধান শিক্ষককে ধাক্কা মেরেছে। ক্ষোভের জায়গা থেকে তিনি জুতা দিয়ে তখন ওই শিক্ষার্থীকে মারধর করেন। তবে ঘটনার সময় প্রধান শিক্ষক উপস্থিত থাকলেও তিনি লাইব্রেরিয়ান টিপুকে জুতা দিয়ে মারধর করতে দেখেননি এমনটি জানালেন।

আর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানে আলম জানালেন, ঘটনাটি সর্ম্পকে তিনি অবগত নন। সত্যতা য়াচাই করে জড়িতের বিরুদ্ধে নেওয়া হবে আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন