০৯ অগাস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১০:৩০:৫৫ অপরাহ্ন
‘রাশিয়ার বিরুদ্ধে’ সেই লড়াইয়ে জিতল যুক্তরাষ্ট্র
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৭-০৫-২০২২
‘রাশিয়ার বিরুদ্ধে’ সেই লড়াইয়ে জিতল যুক্তরাষ্ট্র

রুশ ধনকুবের সুলেইমান কেরিমভের ৩০ কোটি ডলারের একটি প্রমোদতরী চলতি মাসের শুরুতে আটক করেছিল ফিজি। 

ওই সুপারইয়াট বাজেয়াপ্ত করার জন্য একটি আইনি লড়াইয়ের সর্বশেষ পর্যায়ে জিতেছে যুক্তরাষ্ট্র। মামলাটি এখন প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশটির শীর্ষ আদালতে যাচ্ছে বলে বার্তা সংস্থা এএফপি শুক্রবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে। 

ফিজির আপিল আদালত শুক্রবার ফেইজাল হানিফের একটি আপিল খারিজ করে দিয়েছেন। ফেইজাল হানিফই আইনত সুপারইয়াট আমেদিয়ার মালিকানাধীন কোম্পানির প্রতিনিধিত্ব করছেন। হানিফ যুক্তি দিয়েছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ফিজির পারস্পরিক সহায়তা আইনের অধীনে জাহাজটি বাজেয়াপ্ত করার কোনো এখতিয়ার নেই। অন্তত যতক্ষণ না কোনো আদালতে আমেদিয়ার প্রকৃত মালিকানা নির্ধারণ করা হয়।

অবশ্য যুক্তরাষ্ট্র পালটা যুক্তি দিয়ে বলেছিল, বিভিন্ন ফ্রন্টের পিছনে কেম্যান দ্বীপপুঞ্জ-পতাকাযুক্ত বিলাসবহুল ইয়াটটি সত্যিই অনুমোদিত রাশিয়ান অলিগার্চ সুলেমান কেরিমভের মালিকানাধীন তা তদন্তে পাওয়া গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে রায় যাওয়ার পর হানিফ জানান, তিনি এখন মামলাটি ফিজির সুপ্রিম কোর্টে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন। আপিলের শুনানি হওয়ার আগে মার্কিন এজেন্টদের ফিজি থেকে আমেদিয়া যাত্রা বন্ধ করার জন্য আদালতের আদেশের জন্য আবেদন করবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

কেরিমভের বিরুদ্ধে অর্থপাচারের অভিযোগ এনে তার প্রমোদতরীটি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে বলে এর আগে জানিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।

অর্থনীতিবিদ এবং সাবেক রাশিয়ান রাজনীতিবিদ সুলেইমান কেরিমভ ফোর্বস ম্যাগাজিনের তথ্যানুসারে রাশিয়ার নবম ধনী ব্যক্তি।  তার মোট সম্পদের পরিমাণ এক হাজার ৪৫০ কোটি মার্কিন ডলার।  

ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক আগ্রাসনের পর রুশ এই ধনকুবেরের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও যুক্তরাজ্য এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নও অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

শেয়ার করুন