০৯ অগাস্ট ২০২২, মঙ্গলবার, ১১:০০:৪১ অপরাহ্ন
দুর্গাপুর থানার ওসি’র মানবিকতায় আপন ঠিকানায় ফিরল শিশু হাসিবুল
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৪-০৬-২০২২
দুর্গাপুর থানার ওসি’র মানবিকতায় আপন ঠিকানায় ফিরল শিশু হাসিবুল

 দুর্গাপুর: হাসিবুল ইসলাম (১২)। শনিবার দুপুরের দিকে ভবঘুরের মতো ঘুরছিলেন দুর্গাপুর থানা মোড়ে। শিশু হাসিবুলের জীর্ণশীর্ণ চেহারা অনেকেই অবলোকন করলেও কারো সুদৃষ্টি পড়েনি তার ওপরে। কিন্তু দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হকের দৃষ্টি এড়ায়নি শিশু হাসিবুল।

ওসি তাকে ডেকে নিয়ে তার খোঁজ খবর নেন এবং দুপুরের খাবার খাইয়ে তাকে নিজের হেফাজতে রাখেন। পরে শিশু হাসিবুলের কাছ থেকে তার স্বজনদের ঠিকানা সংগ্রহ করে শনিবার সন্ধ্যার দিকে তার বাবার কাছে তাকে হস্তান্তর করেন। ওসির এমন মানবিকতায় থানা পুলিশের পাশাপাশি মুগ্ধ হোন ওই শিশুর পরিবার ও এলাকাবাসী।

দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হক বলেন, শনিবার দুপুরের দিকে থানার প্রধান ফটকের সামনে শিশু হাসিবুলকে ঘুরতে দেখে তাকে ডেকে নেন। পরে তার কাছে এভাবে ঘুরাঘুরির কারন জানতে চান।

ওসি নাজমুল হক বলেন, তার বাবার বাড়ি উপজেলার গৌরিহার গ্রামে। তার বাবার নাম শাহজামাল। হাসিবুলের জন্মের ৪ বছর পর পারিবারিক কলহের জেরে হাসিবুলের মায়ের বিচ্ছেদ ঘটান শাহজামাল। এরপর ৪ বছর বয়সী হাসিবুলকে নিয়ে হাসিবুলের মা বেলপুকুর থানা এলাকার ফাটাপুকুরিয়া গ্রামে পিতা মহসিন হোসেনের বাড়ি চলে যান। হাসিবুলের বাবা শাহজামাল রংপুরে বিয়ে করে সেখানেই বসবাস শুরু করেন।

অন্যদিকে, হাসিবুলের মা হানুফা বেগম অন্যত্র বিয়ে করে হাসিবুলকে তার নানার বাড়ি রেখে চলে যান। তারপর থেকে হাসিবুল নানার বাড়িতেই থাকতো। নানা মহসীন হোসেন অত্যন্ত দরিদ্র হওয়ায় হাসিবুলের খোরপোষ মেটাতে ব্যার্থ হয়ে হাসিবুলকে বাড়ি থেকে বের করে দেন। হাসিবুল নানার বাড়ি থেকে বের হয়ে বাবার বাড়ি গৌরিহার গ্রামে গেলেও দাদা-দাদীরা তারা দায়-দায়িত্ব নিতে অস্বীকৃতি জানান। বাধ্য হয়ে হাসিবুল ঘুরতে ঘুরতে দুর্গাপুর থানা এলাকায় আসলে নজরে আসে ওসির।

এরপর ওসি নাজমুল হক শিশু হাসিবুলকে ডেকে দুপুরের খাবার খাইয়ে তার বাবা শাহজামালকে ডেকে সন্ধ্যার দিকে হাসিবুলকে হস্তান্তর করেন।

ওসি নাজমুল হক আরও বলেন, অন্য শিশুদের মতো এই বয়সে যার স্কুলে যাওয়ার কথা। স্কুল থেকে বাড়ি ফিরেই বাবা-মায়ের কাছে যার শত বায়নার ফিরিস্তি তুলে ধরার কথা। অথচ হাসিবুল ইসলাম বাবা-মায়ের স্নেহের পরশ বঞ্চিত হয়ে এই বয়সে ভবঘুরে হয়ে পড়েছিলেন।মানবিকতার জায়গা থেকে এমন উদ্যোগ নিয়েছেন বলেও জানান ওসি।

শেয়ার করুন